vote

কলকাতা: রাজ্য সরকারের প্রস্তাব মেনে নিয়ে দ্বিতীয় বার পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। সরকারের প্রস্তাব মতো এক দফার ভোটে রাজি হলেও কমিশনের তরফে করা হল কিছু অদলবদল।

কমিশন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানিয়েছে, আগামী ১৪ মে রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। যা রাজ্য সরকারের প্রস্তাবেও ছিল। অন্য দিকে ১৬ মে গৃহীত হবে পুনর্নির্বাচন। সকাল ৭টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া চলবে।  ভোট গণনা হবে আগামী ১৭ মে।

একটি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিশেষ অনুষ্ঠানের আগে ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে রাজ্য সরকার ও নির্বাচন কমিশনের কাছে বাড়তি চাপের সৃষ্টি হয়েছিল। যে কারণে তাদের ভাবাবেগ ধরে রাখতেই কমিশন এক দফায় ভোটের প্রস্তাবে সায় দিল বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে রাজনৈতিক মহলের তরফে।

আরও পড়ুন: ভোটের দিন জানিয়ে দিল সরকার, এক দফায় সায় থাকলেও নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন কমিশনের

তবে ভোট বিজ্ঞপ্তি জারি হয়ে গেলেও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে কমিশন কী করতে চলেছে, তা এখনও পুরোপুরি স্পষ্ট নয়। রাজ্যে ৫৮,৪৬৭টি বুথে ভোট গ্রহণ হবে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে রাজ্য সরকারি পুলিশের সংখ্যা মাত্র ৫৮ হাজারের মতো। অর্থাৎ বুথ পিছু একজন করে পুলিশ কর্মী মোতায়েনের সুযোগ থাকছে কমিশনের হাতে। অন্য দিকে কলকাতা পুলিশে কর্মীর সংখ্যা ২৬ হাজার। তাদের কাজে লাগানো হবে কিনা, তা স্পষ্ট নয়। পরিষ্কার নয়, সিভিক ভলান্টিয়ারদের ভোটের কাজে ব্যবহার করার বিষয়টিও।

তবে নির্বাচন কমিশনের নতুন ভোটসূচি নিয়ে সন্তুষ্ট নয় বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। সিপিএম এবং বিজেপির তরফে এর বিরোধিতা করে বিষয়টিকে আদালতের গোচরে নিয়ে আসার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here