মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও’ মন্তব্যে রিপোর্ট তলব নির্বাচন কমিশনের

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার কোচবিহারের জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এ বারের ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর আচরণ নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেন। তিনি মা-বোনেদের উদ্দেশে বলেন, সিআরপিএফ ভোট দিতে বাধা দিলে তাদের ঘেরাও করতে। মমতা সেই মন্তব্যেরই রিপোর্ট তলব করল নির্বাচন কমিশন (election commission)।

অভিযোগ বিজেপির

মমতার মন্তব্য নিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানায় বিজেপি। বলা হয়, এ ধরনের মন্তব্য নিয়ে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে বিষয়টা আরও বিস্তার লাভ করবে। বিজেপি প্রতিনিধিদলের সদস্য শিশির বাজোরিয়া বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী ধাপে ধাপে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আটকানোর কথা বলেছেন। স্পষ্ট ভাবে নির্দেশ দিয়েছেন, একটা দল ঘেরাও করবে। একটা দল ভোট করে আবার আসবে। আবার একটা দল ঘেরাও করবে। এই ভাবে তিন ভাগে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আটকাতে হবে”।

কী বলেছিলেন মমতা

কেন্দ্রীয় বাহিনী গ্রামে- গ্রামে ঢুকে মহিলাদের ভোট দিতে বাধা দিচ্ছে জানিয়ে মমতা বলেন, “মনে রাখবেন, কোচবিহারের আশেপাশের কিছু জায়গা আছে বাংলাদেশের। সেই জায়গাগুলিও সিল হবে। যাতে বাইরে থেকে এসে কেউ গুন্ডামি করতে না পারে। সিআরপিএফ যদি গন্ডগোল করে, মেয়েদের বলে দিচ্ছি, ওদের ঘেরাও করে রাখবেন একদল, আর একদল ভোট দিতে যাবেন। একদল ঘেরাও করবেন, একদল ভোট দিতে যাবেন। ভোট নষ্ট করবেন না”।

নির্বাচন কমিশনের পদক্ষেপ

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নির্দেশেই সিআরপিএফের একাংশ বিজেপির হয়ে কাজ করছে বলে জোরালো অভিযোগ করেন মমতা। নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দফতর বুধবার বিকেলে এ বিষয়ে কোচবিহারের জেলাশাসক তথা জেলা নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে রিপোর্ট চেয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: দরকার হলে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করে রাখবেন, মা-বোনেদের বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন