তৃণমূলের কাছ ভোট করানো শিখতে হবে নির্বাচন কমিশনকে, মুকুলের চিঠি

0
4478
mukul roy

কলকাতা: রাজ্য নির্বাচন কমিশন আগামী পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশের পর থেকেই দিনক্ষণ নিয়ে সরব হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। ক্রমবর্ধমান সমর্থন বৃদ্ধির কারণে এ মুহূর্তে বিজেপির প্রতিবাদের বহরই সব থেকে বেশি। এক দিকে যেমন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এ বিষয়ে আদালতে যাওয়ার আওয়াজ দিয়েছেন, তেমন দলের পঞ্চায়েত পর্যবেক্ষক মুকুল রায়ও নির্বাচন কমিশনকে পত্রাঘাত করেছেন। কী রয়েছে সেই চিঠিতে?

জানা গিয়েছে, মূলত তিন-চারটি বিষয়ের উপর গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করেছেন মুকুলবাবু। প্রথমত, তৃণমূল কংগ্রেস কী ভাবে ভোটের সময় রিগিং করে তা চাক্ষুষ করতে কেন্দ্র ৫০ জন পর্যবেক্ষক পাঠাক। দ্বিতীয়ত, পশ্চিমবঙ্গের ভোটে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আটসাট করতে একটি পৃথক মডেল তৈরি করতে হবে। তৃতীয়ত, পরীক্ষার মরশুমে মাইক বাজানোর নিষেধাজ্ঞায় প্রচারের কাজ ব্যাহত হবে।

এই তিনটি বিষয় নিয়ে যদি নির্বাচন কমিশন আগাম বন্দোবস্ত নেয়, তা হলেই পশ্চিমবঙ্গের ভোট নির্বিঘ্নে পরিচালনা করা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

আরও পড়ুন: মুকুল রায়কে কেন ‘ঘর মোছা ন্যাতা’ বললেন এই তৃণমূল বিধায়ক?

“আমরা জানি যে পঞ্চায়েত নির্বাচন কমিশনের অধীনে পরিচালিত হয় না। কিন্তু আমরা তাদের কাছে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকদের একটি দল পাঠাতে এবং ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া বিশ্লেষণ করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। কীভাবে বাংলায় নির্বাচনে ‘রিগিং’ করা হয়ে থাকে তা থেকে শিক্ষা নিয়ে একটি পৃথক নির্বাচনী মডেল তৈরি করতে পারবেন ওই পর্যবেক্ষকরা। ওই মডেল আগামী ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন সুষ্ঠু ভাবে পরিচালনা করতে কাজে লাগবে”, বলেন মুকুলবাবু।

সঙ্গে পড়ুন: ‘ফেক নিউজ’-এর যুগে আদৌ অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে পারবে কি ‘এপ্রিল ফুল’?

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here