রাজ্যের সরকারি হোম গুলি থেকে আবাসিক দের পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা একাধিক বার খবরের শিরোনামে এসেছে। কয়েকদিন আগেই হুগলির উত্তরপাড়া হোম ভেঙে ১১ জন মহিলা আবাসিকের পালিয়ে যাওয়ার খবর নিয়ে তোলপাড় হয় রাজ্য। এর পরই নড়ে চড়ে বসে রাজ্য সরকার। হোমগুলি থেকে আবাসিকদের পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা রুখতে রাজ্যের ২৮ টি সরকারি হোমেই ‘বৈদ্যুতিন অ্যালার্ম’ বসনোর পরিকল্পনা নিয়েছে নারী ও সমাজকল্যাণ দফতর। হোমগুলির প্রধান দরজায় এগুলি বসানো হবে বলে দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। একেবারে আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করা হচ্ছে অ্যালার্ম।  এই অ্যালার্ম  এমন বিশেষ প্রযুক্তিতে তৈরি, যদি হোমের কোনও আবাসিক হোমের বাইরে পা রাখেন সঙ্গে সঙ্গে এটি বেজে উঠবে। এই শব্দে একই সঙ্গে নিরাপত্তা কর্মী এবং হোমের অন্যান্য আধিকারিকরা সজাগ হতে পারবেন। জাপানের একটি সংস্থা এটি তৈরি করছে বলে দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।

হোমগুলিতে এই অ্যালার্ম বসাতে সময় লাগবে ৩ বছর। এর জন্য খরচ ধার্য হয়েছে ৩০ লক্ষ টাকা।

 নারী ও সমাজ কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেন, এ বিষয়ে একটি ফাইল ইতিমধ্যেই অর্থ দফতরে পাঠানো হয়েছে। একটি বেসরকারি সংস্থাকে দিয়ে এই বিষয়ের ওপর সমীক্ষাও করিয়ে নেওয়া হয়েছে। সেই সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী হোমগুলিকে ঢেলে সাজার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। হোমের নিরাপত্তা বাড়াতে প্রতিটি হোমে বাড়ানো হচ্ছে ২ জন করে নিরাপত্তা রক্ষী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here