killed elephant

নিজস্ব প্রতিনিধি, জলপাইগুড়ি: ফের ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হল হাতির। ডুয়ার্সের দেবপাড়া চা বাগান সংলগ্ন রেললাইনে শুক্রবার রাতে দুর্ঘটনা ঘটে।

দেবপাড়া চা বাগান সংলগ্ন ওই এলাকা হাতি চলাচলের করিডর বলেই পরিচিত। এক পাশে রেতির জঙ্গল, অন্য পাশে ডায়নার জঙ্গল। মাঝখান দিয়ে চলে গিয়েছে রেললাইন। স্থানীয় সূত্রে খবর, মধ্যরাতে একদল হাতি রেতির জঙ্গল থেকে রেললাইন পার হয়ে ডায়নার জঙ্গলে যাচ্ছিল। সেই সময় শিলিগুড়ি থেকে আলিপুরদুয়ারগামী কোনো ট্রেন ১২ বছর বয়সি ওই মাদী হাতিটিকে সজোরে ধাক্কা মারে। প্রায় ১০০ফুট ছেচঁড়িয়ে নিয়ে ৩০ ফুট নীচে ফেলে দেয়। শনিবার সকালে হাতিটির মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের মারফত খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন বন বিভাগের আধিকারিকরা। গরুমারা বন্যপ্রাণ বিভাগের বনাধিকারিক নিশা গোস্বামী এই দুর্ঘটনার দায় রেল বিভাগের ওপর চাপিয়েছেন।

যদিও পরিবেশপ্রেমী সংগঠনগুলির অভিযোগ, বন দফতরের এবং রেল দফতরের মধ্যে সমন্বয়ের অভাবের ফলেই বারবার এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। বস্তুত পরিসংখ্যান বলছে, শুধু ডুয়ার্সেই গত চোদ্দো বছরে এই নিয়ে ৬১টি হাতির মৃত্যু হয়েছে ট্রেনের ধাক্কায়। এ ছাড়াও বাইসন, হরিণ-সহ বিভিন্ন বন্যপ্রাণীর মৃত্যুর ঘটনা তো রয়েছেই। একটি পরিবেশ ও পশুপ্রেমী সংগঠনের সম্পাদক রাজা রাউত জানিয়েছেন, এই ভাবে বন্যপ্রাণী মৃত্যু রুখতে দুই দফতরকে আরও বেশি উদ্যোগী হতে হবে।

তবে বন দফতরের দাবি, তারা এই ধরনের দুর্ঘটনা রুখতে যথেষ্ট ব্যবস্থা নিয়েছেন, যার জন্য গত দু’বছরে ডুয়ার্সে ট্রেনের ধাক্কায় হাতি মৃত্যুর ঘটনা কমেছে। এ দিকে কোন ট্রেনের ধাক্কায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা-ও এখনও স্পষ্ট নয়। আলিপুরদুয়ার রেল ডিভিশনের পক্ষে জানানো হয়েছে, তারা দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here