আধুনিক স্বাস্থ্য পরিষেবায় প্রযুক্তি ব্যবহারের উপর বাড়তি জোর

0

কলকাতা: মেডিকা হসপিটাল্‌স এবং বেঙ্গল চেম্বারের যৌথ ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত হল ‘হেল্‌থ টেক ২০২০’। আধুনিক স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রে তথ্য-প্রযুক্তির অবদান এবং বিস্তারের উপর বিশেষ এই অনুষ্ঠানটি ২১-২২ ফেব্রুয়ারি আয়োজিত হল ইএম বাইপাসের একটি পাঁচতারা হোটেলে।

স্বাস্থ্য প্রযুক্তি বা ডিজিটাল স্বাস্থ্য আদতে স্বাস্থ্য পরিষেবা সম্পর্কিত পণ্যগুলির বিকাশ এবং বাণিজ্যিকীকরণ বৃদ্ধির দক্ষতার সঙ্গে জড়িত। যেমন রোগীর যত্নের পদ্ধতি উন্নত করতে বিভিন্ন ধরনের ডেটাবেস, অ্যাপ্লিকেশন, মোবাইলের মতো প্রযুক্তি ব্যবহার করা এখনকার দিনের চল। এই পরিষেবাকে আরও উন্নত ও শক্তিশালী করার লক্ষ্যেই আয়োজিত হয় দু’দিনের এই অনুষ্ঠান।

বেঙ্গল চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রাক্তন সভাপতি এবং মেডিকা গ্রুপ অব হসপিটাল্‌সের চেয়ারম্যান ডা. অলোক রায় বলেন, “আমাদের আজকের জীবন মূলত প্রযুক্তি-নির্ভর। বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলে যে ভাবে প্রযুক্তি পৌঁছে যাচ্ছে, তারই সঙ্গে তাল মিলিয়ে স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রেও প্রযুক্তির বিস্তার ঘটানোর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। রোগনির্ণয় এবং চিকিৎসাক্ষেত্রে আধুনিক প্রযুক্তির সরঞ্জাম ব্যবহারের ফলে পরিষেবা আরও দ্রুত এবং নিখুঁত করা সম্ভব”।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়িয়ে সাধারণের দরজায় পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব। আবার ডিজিটাজেশন দক্ষতা বাড়াতেও সহায়ক। এটা এক দিকে যেমন ব্যয় হ্রাস করবে, অন্য দিকে স্বচ্ছতার পরিবেশ তৈরি করবে। ডিজিটাল রূপান্তর ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে এবং এটি পরবর্তী ৫-১০ বছরের মধ্যে আরও ত্বরান্বিত হবে”।

প্রাইস ওয়াটার হাউস কুপার্স প্রাইভেট লিমিটেডের পক্ষে অর্ণব বসু বলেন, “বাস্তব সময়ের চাহিদা পর্যবেক্ষণের মাধ্যমেই বলা যায়, আরও দক্ষতার প্রয়োজন রয়েছে। রোবোটাইজড সার্জারি ট্র্যাকিং এবং স্বাস্থ্য বিপর্যয় মোকাবিলা করে নাগরিকদের জন্য অবিরাম নিশ্চয়তা দিতে ডিজিটাল পদ্ধতি অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে”।

বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি বি বি চট্টোপাধ্যায় বলেন, “বাণিজ্যের অন্যতম প্রাচীন সংগঠন হিসাবে আমরা বিশ্বাস করি যে, আমাদের অংশীদারদের সর্বশেষতম প্রযুক্তিগত উন্নয়নের বিষয়ে, বিশেষত হেলথ কেয়ারের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টিতে আপডেট করা আমাদের অবশ্য কর্তব্য। পশ্চিমবঙ্গ এখন প্রতিবেশী দেশগুলির রোগীদের জন্য একটি চিকিৎসা গন্তব্য। এখানে আমাদের প্রবীণ এবং দক্ষ চিকিৎসক রয়েছেন, প্রযুক্তি কেন্দ্রিক চিকিৎসাকে এগিয়ে নিয়ে চলাও আমাদের লক্ষ্য”।

আরও পড়ুন স্বাস্থ্য সাবধান: প্রেসার বাড়লে কী ওষুধ খাব?

আলোচকরা স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রের অন্যতম অংশীদার হাসপাতাল, ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম নির্মাতা-সরবরাহকারী সংস্থার এবং বিমা সংস্থার পাশাপাশি স্টার্টআপগুলির প্রযুক্তিগত উন্নতিসাধনের উপর প্রভূত জোর দেওয়ার আহ্বান জানান। নতুন ধারণা এবং উদ্ভাবনগুলি, বিশেষত স্টার্টআপের অংশগ্রহণে নতুন একটি আশার সঞ্চার হয়েছে। বর্তমানে স্বাস্থ্য পরিষেবা বাজারের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে স্টার্টআপের।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.