hospital

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: ঘরে এসেছিল মেয়ে-জামাই, তাই জমিয়ে আয়োজন হয়েছিল রাতের খাওয়াদাওয়ার। কিন্তু কে জানত সেই মাংস খেয়ে রাতে ঘুমোনোর পর আর কখনোই সেই ঘুম ভাঙবে না তাঁদের।

শুক্রবার মেয়ে-জামাই আসার আনন্দে মাংস রান্না করেছিলেন নডিহার মঞ্জু গোপ। কিন্তু শনিবার সকালে প্রতিবেশীরা তাঁদের ডাকাডাকি করলে কোনোরকম সাড়াশব্দ না পেয়ে রথু গোপের বাড়িতে ঢুকে দেখেন সকলেই অচৈতন্য হয়ে পড়ে আছেন । তৎক্ষণাৎ রথু গোপের স্ত্রী মঞ্জু গোপ, ছেলে রঞ্জিত গোপ, বড়ো মেয়ে টুম্পা গোপ, ছোট মেয়ে রুম্পা গোপ ও জামাই বিকাশ গোপকে পুরুলিয়া দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। তাঁদের মধ্যে বড়ো মেয়ে টুম্পার স্বামী বিকাশ গোপ, ছোট মেয়ে রুম্পা ও ছেলে রঞ্জিত ইতিমধ্যেই মারা যান। চিকিৎসকরা জানান, রথু গোপ, স্ত্রী মঞ্জু গোপ ও বড়ো মেয়ে টুম্পা গোপের অবস্থা এখনও সংকটজনক।

hospital

জানা গিয়েছে, পুরুলিয়ার নডিহার পূর্ণিয়া বাঁধে পরিবার-সহ বসবাসকারী রথু গোপ পেশায় হকার।


পড়তে পারেন: বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবস ২০১৮: মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতির ডাক

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল রাতে মাংস খাওয়ার জন্যই কোনো ভাবে বিষক্রিয়া হওয়ার ফলে পরিবারে সকলেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। যদিও পুরুলিয়া সদর থানার পুলিশ ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে ।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন