তীব্র গরমের পর অবশেষে স্বস্তির ঝড়বৃষ্টি!

0

ওয়েবডেস্ক: গত কয়েকদিন ধরে বহাল থাকা তীব্র এবং অসহনীয় গরম থেকে অবশেষে স্বস্তি পাওয়া গেল। জোর বৃষ্টি সঙ্গে নিয়ে কলকাতা-সহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে আছড়ে পড়ল কালবৈশাখী। এখানেই শেষ নয়, বৃহস্পতিবারও সমগ্র দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে কালবৈশাখীর সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে।

গত রবিবার থেকে বেড়ে চলেছে সর্বোচ্চ পারদ। পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে তাপপ্রবাহ। কলকাতায় তাপপ্রবাহ না থাকলেও এখানে ছড়ি ঘোরাচ্ছে আর্দ্রতা। সব মিলিয়ে জেরবার দক্ষিণবঙ্গের মানুষ, চাতক পাখির মতো বৃষ্টির প্রার্থনা করছেন। অবশেষে সেই ঝড়বৃষ্টি হাজির হল।

এ দিন সন্ধ্যার পর থেকেই দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলা ঝড়বৃষ্টি পেয়েছে। সাড়ে দশটার কিছু পড়ে ঝড় আছড়ে পড়ে কলকাতেও। তবে বৃহস্পতিবার ঝড়বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা খুবই উজ্জ্বল।

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা জানাচ্ছে, গত কয়েকদিন ধরে চলা তীব্র গরমের প্রভাবে ঝাড়খণ্ডের ছোটোনাগপুর মালভুমি অঞ্চলে তৈরি হবে একটি ঘূর্ণাবর্ত। এই ঘূর্ণাবর্তকে জলীয় বাষ্প জোগান দেওয়ার জন্য পঞ্জাব থেকে বাংলাদেশ পর্যন্ত একটি অক্ষরেখা বিস্তার করছে। পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় বায়ুর প্রভাবে আরব সাগর থেকেও কিছু জলীয় বাষ্প চলে আসবে ঝাড়খণ্ডের ওপরে। এই সবের প্রভাবেই বৃহস্পতিবার বিকেলের পর ঝড়বৃষ্টির জন্য অনুকূল হয়ে উঠতে পারে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া।

আরও পড়ুন ইতিহাসের অন্যতম ভয়বাহ দুর্যোগের মুখে গুজরাত, পূর্ব ভারতের রাজ্যের শরণাপন্ন

বৃহস্পতিবারের পর এমন কি শুক্রবার সন্ধাতেও ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ঝড়বৃষ্টি হলেও, এখনই বর্ষা আসার কোনো ইঙ্গিতই নেই। গরমের ফলে আগামী শনিবার থেকে সামনের সপ্তাহের মঙ্গলবার পর্যন্ত পরিস্থিতি আরও অসহনীয় হয়ে উঠতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here