আটচল্লিশ ঘণ্টাও কাটেনি, ফের আগুন লাগল সরকারি হাসপাতালে। আজ সকালে ভবানীপুরের শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালের সেমিনার কক্ষে আগুন লাগে। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে রোগীর পরিবারের লোকজনের মধ্যে।হাসপাতালের অগ্নি নির্বাপণ যন্ত্রের সাহায্যে স্বাস্থ্য কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। খবর দেওয়া হয় দমকলে। দমকলের ৫টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে এসে বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজের মতো এখানেও এসি মেশিন থেকে শর্ট সার্কিট হয়েই আগুন লাগে বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে।

দোতলায় লাইব্রেরির পাশে সেমিনারের কক্ষ থেকে প্রথমে ভীষণ জোরে আওয়াজ আসে। তার পর  তীব্র ধোঁয়া বেরতে দেখা গেলে আগুন লাগার কথা বুঝতে পারে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং রোগীর পরিজনরা। বন্ধ করে দেওয়া হয় আউটডোর। হাসপাতালের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। ঠিক কী কারণে আগুন তা তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে ফরেন্সিক দল পাঠানো হয়।

গত ৯ দিনে এই নিয়ে ৩বার সরকারি হাসপাতালে আগুন লাগলো। প্রথমে বর্ধমানের কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল, তারপর মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ আর আজ শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতাল। বারবার প্রশ্নের মুখে পড়ছে রাজ্যের সরকারি হাসপাতালগুলির অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা। ২০১১ সালের শেষ দিকে ঘটে যাওয়া আমরি-কাণ্ডের বীভৎসতার পরেও এত উদাসীন কেন রাজ্যের হাসপাতালগুলি। উত্তরের অপেক্ষায় সাধারণ মানুষ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here