ছ’ঘণ্টা পর নিভল বৈদিক ভিলেজের আগুন, রইল প্রশ্ন

0
vedic village
আগুনের গ্রাসে বৈদিক ভিলেজ।

ওয়েবডেস্ক: অনেক কিছু প্রশ্ন তুলে দিয়েই নিভল বৈদিক ভিলেজের আগুন। সোমবার রাত দশটা নাগাদ বজ্রপাতের জেরে আগুন লেগে যায় রাজারহাটের বিলাসবহুল এই রিসোর্টে। দমকলের সাহায্যে আগুন পুরোপুরি নেভার আগে পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে রিসেপশন, রেস্তোরাঁ এবং বেশ কিছু কটেজ।

ঘটনার সূত্রপাত সোমবার রাত পৌনে দশটা নাগাদ। তখন সবে কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়েছে কলকাতায়। হঠাৎ বিকট শব্দে কান ঝালাপালা হয়ে যায় রিসোর্টে আগত অতিথি এবং কর্মীদের। কিছু বুঝে ওঠার আগেই দেখা যায় দাউদাউ করে জ্বলছে রিসেপশনের খড়ের চাল। বোঝা যায়, বাজ পড়েই আগুন ধরে গিয়েছে এখানে।

Loading videos...

রিসেপশন লাগোয়া রেস্তোরাঁ। ঘটনায় সময়ে সেখানে খাওয়াদাওয়া করছিলেন বেশ কিছু অতিথি। দ্রুত সেখানে আগুন ছড়িয়ে পড়তেই আতঙ্কে হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায় সাধারণ মানুষের মধ্যে। এর পর আগুনের গ্রাসে চলে আসে একাধিক কটেজও। দমকলে খবর দেওয়া হলে প্রথমে একটি ইঞ্জিন আগুন আয়ত্তে আনার চেষ্টা করে। কিন্তু তার একার পক্ষে কিছু করা সম্ভব ছিল না। পরে আরও এগারোটা ইঞ্জিন সেখানে হাজির হয়।

এর পর প্রায় ছ’ঘণ্টার চেষ্টায় মঙ্গলবার ভোরে রিসোর্টের আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ততক্ষণে যা হবার হয়ে গিয়েছে। আগুনে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে রিসোর্টের একটা বড়ো অংশ। আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছোন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসুও।

আরও পড়ুন ঝড়ের প্রভাবে মনোরম সকাল দক্ষিণবঙ্গে, সোমবারের পুনরাবৃত্তি মঙ্গলেও?

জানা গিয়েছে, রিসোর্টের রেস্তোরাঁয় প্রচুর দাহ্য বস্তু মজুত ছিল। সেই কারণে আগুন আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এখানেই তৈরি হচ্ছে প্রশ্ন। দমকলের চোখ এড়িয়ে শহরের উপকণ্ঠের একটি বিলাসবহুল রিসোর্টে কী ভাবে দাহ্য বস্তু মজুত থাকতে পারে।

তবে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও একাধিকবার আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে রিসোর্টের বিভিন্ন অংশ।

উল্লেখ্য, ২০০৯-এ প্রথম বার বিতর্কের সৃষ্টি হয় এই রিসোর্টকে কেন্দ্র করে। তৎকালীন বাম সরকারের বিরুদ্ধে গ্রামবাসীদের অভিযোগ ছিল বেআইনি ভাবে জমি দখল করে এই রিসোর্ট তৈরি করা হয়। ওই বছরের আগস্টে একটি ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে এক ঝামেলার সৃষ্টি এবং তার রোষ গিয়ে পড়ে এই রিসোর্টের দিকেই। রিসোর্টের একটা বড়ো অংশে আগুন লাগিয়ে দেন গ্রামবাসীরা। তার পর থেকে মাঝেমধ্যেই বিতর্ক হয়েছে এই রিসোর্টকে নিয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.