modi pandal

ওয়েবডেস্ক: গত সোমবার মেদিনীপুর কলেজিয়ে‌ট মাঠে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভা চলাকালীন প্যান্ডেল ভেঙে পড়ার ঘটনায় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের প্রাথমিক অনুমান প্রকাশ্যে এল।

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের মাঝেই ভেঙে পড়ে প্যান্ডের একটি ্অংশ। এ ব্যাপারে বিভিন্ন মহল থেকে খাড়া করা হয়েছে বিভিন্ন কারণ। দলীয় ভাবে বিজেপির দাবি, মোদীর সভায় আশাতীত ভিড় হয়েছিল। এত ভিড় হবে তা তাঁরা অনুমান করতে পারেননি। সেই ব্যাপক ভিড়কে সামাল দিতে পারেনি পুলিশ। এমনকী প্যান্ডেল ভেঙে পড়ার পর আতঙ্কিত জনতার উপর পুলিশ লাঠিচার্জ করে বলেও বিজেপির তরফে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: মেদিনীপুরে মোদীর জনসভা চলাকালীন বড়োসড়ো দুর্ঘটনা, প্যান্ডেল ভেঙে আহত ৪৪

তবে বিজেপিরই একটি অংশ বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমের সামনে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ চলাকালীন কিছু সমর্থক লোহার কাঠামোর উপর উঠে পড়েন। টানা বৃষ্টিতে মাটি নরম হয়ে যাওয়ায় এবং লোহার খুঁটি অতিরিক্ত গর্ত না খুঁড়ে ঢোকানোর জন্য ওই অংশটি ভেঙে পড়ে যায়।

তবে যে যাই বলুন, মঙ্গলবার সকালে এলাকা পরিদর্শন করেন ফরেনসিক দল। এক বিশেষজ্ঞ বলেন, প্রাথমিক ভাবে তদন্ত করে দেখা গিয়েছে প্যান্ডেল নির্মাণে গলদ ছিল। যে লোহার কাঠামো ব্যবহার করা হয়েছিল তার গঠনগত ত্রুটি ছিল। ওই কাঠামোর নীচের থেকে উপরের দিকের অংশ ভারী হয়ে গিয়েছিল। মাঝখান থেকে যে লোহার বিম ও পাইপ, নাট-বোল্ট ব্যবহার করা হয়েছিল, তার বেশিরভাগই পুরনো, মরচে ধরা। আশর্যজনক ভাবে ওই বিমগুলি মাত্র চার ইঞ্চি সমান গর্তে পুঁতে প্যান্ডেল তৈরি হয়েছিল। ওই দুর্বল কাঠামোর উপরই যখন কিছু মানুষ উঠে পড়ে তখন তা বার সহ্য করতে না পেরে ভেঙে পড়ে বলে অনুমান ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের।

মঙ্গলবারই সংশ্লিষ্ট ডেকোরেটার এবং ঠিকাদার সংস্থার বিরুদ্ধে অনিচ্চাকৃত খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here