ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটে রাজ্যের তিনটি আসনে পৃথক ভাবে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করার হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছিল বামফ্রন্ট শরিক ফরওয়ার্ড ব্লক। বহস্পতিবার সিপিএমের রাজ্য দফতরে বৈঠকের পরেই কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতা নিয়ে কোনো সমাধানসূত্র না মেলায় পুরুলিয়া-বারাসত-কোচবিহারে ফরওয়ার্ড ব্লকের পৃথক ভাবে প্রার্থী দেওয়ার সম্ভাবনা আরও প্রকট হল। দলীয় সূত্রে খবর, আজকালের মধ্যেই ওই তিন কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করতে পারে ফরওয়ার্ড ব্লক।

আলিমুদ্দিনের বৈঠকেই সিপিএম স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছে, পরিস্থিতি যাই হোক, কংগ্রেসের সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতা হচ্ছেই। সে ক্ষেত্রে প্রদেশ কংগ্রেসের দাবি মেনে রাজ্যের ৪২টি আসনের মধ্যে ১৩টি তাদের ছাড়তে রাজি সিপিএম। প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব ১৪টি আসনের দাবি করলেও বামফ্রন্টের শরিকদের কোটার দিকে তাকিয়ে ১৩টি দিতে সম্মত হয়েছে সিপিএম।

কিন্তু, ফরওয়ার্ড ব্লকের প্রবল আপত্তি রয়েছে কংগ্রেসের সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতায়। একই ভাবে আরএসপি এবং সিপিআইয়ের মতো শরিক দলগুলিও পরিস্থিতির চাপে পড়ে সমঝোতায় সম্মত হলেও চাপা ক্ষোভ রয়েই গিয়েছে। বহরমপুর আসনটি নিয়ে চলছে কংগ্রেস-আরএসপি দ্বন্দ্ব। দুই পক্ষই আসনটি ছাড়তে নারাজ। এমন অবস্থায় সিপিএমের তরফে চরম বার্তা দেওয়া হয়েছে ফরওয়ার্ড ব্লক নেতৃত্বের উদ্দেশে। প্রয়োজনে তাদের বাদ দিয়েই কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতার পথে হাঁটতে পারে সিপিএম।

সূত্রের খবর, ওই বৈঠকে সূর্যকান্ত মিশ্র ও বিমান বসু যুক্তি দিয়েছেন যে, “রাজ্যে ৪২টি আসনে তৃণমূলের সঙ্গে সমানে লড়াই করার মতো রাজনৈতিক, সাংগঠনিক ও আর্থিক সঙ্গতি আর বামফ্রন্টের নেই। এই পরিস্থিতিতে বামেরা একক লড়াই করে কোনও আসনে অপদস্থ হওয়ার বদলে জোট করে লড়াই করাই বাস্তবসম্মত কৌশল।”

অন্য দিকে ফরওয়ার্ড ব্লক নেতৃত্বের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, নতুন বন্ধু পাওয়ার আশায় পুরনোদের অবজ্ঞা করা হচ্ছে। সিপিএমের এই অতিরিক্ত কংগ্রেস-প্রীতি ফ্রন্টের কাঠামোটাই বদলে দিতে চলেছে।

[ আগের খবর: কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে চাপ, ফ্রন্ট ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত বাম শরিকদের ]

আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি ফের শরিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছে সিপিএম। ওই বৈঠকে সূর্যকান্ত মিশ্ররা শরিকদের মান ভাঙাতে পারেন কিনা, সেটাই দেখার!

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here