fake

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: তৃণমূল সাংসদের পরিচয় দিয়ে গাড়িতে নীলবাতি ব্যবহার করে চা বাগানে বৈঠকের অভিযোগে নকশালবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হল চার ভুয়ো তৃণমূল নেতাকে। ধৃতদের বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হয়। ধৃতদের বিরুদ্ধে প্রতারণা, ষড়যন্ত্র-সহ একাধিক অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজ্য সরকারের শ্রমিক সংগঠনের এক নেতৃত্বের পরিচয় দিয়ে ভুয়ো সংগঠন তৈরি করতে নকশালবাড়ি ও মাটিগাড়া এলাকার বিভিন্ন চা বাগানের শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক করে তারা। বিষয়টি জানতে পেরে নকশালবাড়ির ‘মেরি ভিউ’ চা বাগানের লোকাল ইউনিট সভাপতি দিলীপ টপ পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

দিলীপবাবু অভিযোগ করেন, “অনির্বাণ ভট্টাচার্য নামে এক ব্যক্তি নিজেকে তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ পরিচয় দিয়ে সঙ্গে আরও পাঁচজন নিয়ে মাটিগাড়া ও নকশালবাড়ির বিভিন্ন বাগানগুলোতে গিয়ে শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক করছে। এতে শাসকদল তৃণমূলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। এর পরই পুরো ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ চার জনকে গ্রেফতার করে”।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতরা হল কলকাতায় বসবাসকারী অনির্বাণ ভট্টাচার্য, অশোক মাহাত, শান্তনু পাত্র ও মহম্মদ দানিশ। এরা মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের বাসিন্দা।

অন্যদিকে সংগঠনের জেলা কার্যকরী সভাপতি নির্জল দে বলেন, “তৃণমূলের ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই দলের নাম ভাঙিয়ে নিজেকে সাংসদ পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন বাগান ঘুরে বেড়াচ্ছিল ওই ব্যক্তি। বিষয়টি জানা মাত্রই আমরা পুলিশের কাছে অভিযোগ করি। এরা প্রত্যেকেই বিজেপির হয়ে কাজ করছে”।

ডেপুটি পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) প্রবীর মণ্ডল বলেন, “নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা প্রত্যেকেই দক্ষিণবঙ্গের বাসিন্দা। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে”।

তবে এ ব্যাপারে বিজেপির কোনো প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here