গঙ্গাসাগর: সাগরমেলা থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল ছয় জনের। মৃতরা সকলেই মহিলা বলে জানা গিয়েছে। সকলেরই বাড়ি উত্তরপ্রদেশে। রবিবার সন্ধ্যা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগণার গঙ্গাসাগরের কচুবেড়িয়ার পাঁচ নম্বর জেটিতে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘটনাস্থলে যথেষ্ট আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ঘটনাস্থলে রয়েছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পুলিশের কর্তারা।

এ দিন সন্ধ্যায় গঙ্গাসাগর থেকে ঘরে ফেরার পথে পুণ্যার্থীরা কচুবেড়িয়ায় আসেন। মুড়িগঙ্গা নদী পার হওয়ার জন্য কচুবেড়িয়ার সব ঘাটেই ভিড় জমিয়েছিলেন পুণ্যার্থীরা। সন্ধ্যার পর মুড়িগঙ্গা নদীতে ভাটা পড়ায় প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, কয়েক ঘণ্টার জন্য ভেসেল পারাপার বন্ধ থাকবে।  কিন্তু সেই সময় মুড়িগঙ্গা পার হওয়ার জন্য কচুবেড়িয়ার এক থেকে পাঁচ নম্বর সব জেটিতেই প্রচুর মানুষ লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন। ভাটার ফলে ভেসেল পারাপার বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা চাউর হতেই পুণ্যার্থীদের মধ্যে শুরু হয়ে যায় হুড়োহুড়ি। আর সেই হুড়োহুড়িতেই ৫ নম্বর জেটির রেলিং ভেঙে নদীতে পড়ে যান অন্তত জনাপনেরো পুণ্যার্থী। জেটির ওপর পড়ে যান আরও অনেকে। তাঁরা অন্য পুণ্যার্থীদের পায়ের তলায় চাপা পড়েন। ফলে আহত হন আরও বেশ কয়েক জন। ঘটনাস্থলেই দু’ জনের মৃত্যু হয়। বাকিদের স্থানীয় কচুবেড়িয়ার অস্থায়ী হাসপাতাল এবং সেখান থেকে রুদ্রনগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে মৃত্যু হয় আরও চার জনের। ঘটনাস্থলে থাকা বিপর্যয় মোকাবিলার কর্মীরা পড়ে যাওয়া পুণ্যার্থীদের উদ্ধারে তৎপর না হলে মৃত ও আহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারত।

ganga-1ঘটনার পর উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়ায় বাকি পুণ্যার্থীদের মধ্যে। তবে পরিস্থিতি দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। আপাতত যাত্রী পারাপার বন্ধ রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here