পুরষ্কার হাতে কদম। নিজস্ব চিত্র
indrani sen
ইন্দ্রাণী সেন

বাঁকুড়া: বাঁকুড়ার জঙ্গলমহল লাগোয়া একটি প্রত্যন্ত গ্রাম কিয়াশোল। মেরেকেটে হাজারখানেক মানুষের বাস। চাষবাসই এখানকার প্রধান জীবিকা। প্রাথমিক শিক্ষার বিকাশে গ্রামের একমাত্র ভরসা একটি মাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয়। এর থেকে বেশি পড়তে হলে মাঠের পথ ধরে কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘপথ পেরিয়ে তালডাংরার ব্রাহ্মণডিহা স্কুল। এত দিন পর্যন্ত এ ভাবেই পড়াশোনা করেছে গ্রামের মেয়েরা।

তবে পড়াশোনার বাড়তি ইচ্ছাই ব্রাহ্মণডিহা স্কুলের ছাত্রী কদম বাউরীকে রাজ্যস্তরে পুরস্কার এনে দিল। হাড়মাসড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কিয়াশোল গ্রামের এই ছাত্রীই এখন বাল্যবিবাহ রোধে জেলা প্রশাসনের ‘রোল মডেল’। গায়ে হলুদের আসর থেকে উঠে গিয়ে নিজের বিয়ে বন্ধ করে দিয়ে জেলায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করা কদম বাউরীকে বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ‘বীরাঙ্গনা’ সম্মানে সম্মানিত করা হল।

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে কদমের বাড়ির লোক তার বিয়ে ঠিক করে। প্রত্যন্ত প্রান্তিক পরিবারের সন্তান কদম নিজ মুখে পরিবারের কাছে বিয়ে না করে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে চায়। কদমের কথায়, “হাতের কাছে ভালো পাত্র পেয়ে সুযোগ হাতছাড়া করতে চায়নি আমার পরিবার।” এই অবস্থা থেকে বাঁচতে বিয়ের দিন গায়ের হলুদের আসর থেকে উঠে গিয়ে গ্রামের মাঠ পেরিয়ে সোজা হাজির হয় নিজের স্কুল  ব্রাহ্মণডিহাতে। স্কুলের শিক্ষকদের তার ইচ্ছের কথা জানালে স্কুল কর্তৃপক্ষ স্থানীয় বিডিওর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। প্রশাসনিক হস্তক্ষেপে বন্ধ হয় কদমের বিয়ে।

আরও পড়ুন পর্যটক টানতে পথচিত্রে সেজে উঠছে বাঁকুড়ার রানি

এখন কদম নিয়মিত স্কুলে যায়। বৃহস্পতিবার  কদমকে জেলাপ্রশাসনের পক্ষ থেকে ‘বীরাঙ্গনা’ সম্মাননা প্রদান করেন জেলাশাসক ডা. উমাশঙ্কর এস। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সহ-সভাপতি শুভাশিস বটব্যাল, বিধায়ক শম্পা দরিপা, বাঁকুড়া পুরসভার চেয়ারম্যান মহাপ্রসাদ সেনগুপ্ত প্রমুখ। জেলাশাসকের কথায়, “এখন জেলায় রোল মডেল কদম। ওকে দেখে অনেক মেয়ে অনুপ্রাণিত হবে।”

প্রশাসনিকভাবে বাল্যবিবাহ রোধে ধারাবাহিক প্রচার চালানো হলেও এই কাজে কদমের মতো অন্যান্য মেয়েরাও এগিয়ে এলে এই কাজটা অনেক সহজ হবে বলে জানান তিনি। এত কিছুর পরও মন ভাল নেই কদমের। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কদম বলে, “বিয়ে বন্ধ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছি। কিন্তু এর জন্য প্রতিবেশিরা আমার বাবা-মাকে কথা শোনাচ্ছে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here