‘কালীর ভক্ত, কোনো কিছুতেই ভয় পাই না’, হুঁশিয়ারি মহুয়া মৈত্রর

0

কলকাতা: কালী নিয়ে তৃণমূল সাংসদ তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের মন্তব্যে জোর জলঘোলা। এ বার সাংসদের গ্রেফতারির দাবিতে পথে নেমেছে বিজেপি। বউবাজার থানায় মোট ৫৬টি অভিযোগপত্র দিয়েছেন বিজেপি মহিলা মোর্চার সদস্যরা। এরই মধ্যে হুঁশিয়ারি দিলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদও।

এফআইআর কার্যকরে ১০ দিন সময় শুভেন্দুর

বিজেপি মহিলা মোর্চার দাবি, আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে হবে পুলিশকে। অন্য দিকে, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীও মহুয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ১০ দিন সময় বেঁধে দিয়েছেন পুলিশকে।

শুভেন্দু বলেন, “মহুয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর কার্যকর করতে হবে। তা যদি না করা হয়, তা হলে আমি পুলিশকে ১০ দিন সময় দিলাম। ১১ দিনের দিন আমি পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে যাব”।

কিছুতে ভয় পাই না, হুঁশিয়ার মহুয়ার

বিতর্কের আবহেই মহুয়া টুইটারে লেখেন, “আমি একজন কালী উপাসক। আমি কিছুতেই ভয় পাই না। আপনার অজ্ঞতাকে নয়। আপনার গুন্ডা অথবা পুলিশকেও নয়। অবশ্যই আপনার সমালোচনাকে নয়”।

সত্যের জন্য অন্য কোনো শক্তির প্রয়োজন নেই দাবি করে আরও একটি টুইটে মহুয়া লেখেন, “যে দেবীকে বাঙালি পুজো করে, সেই দেবী নির্ভীক”।

কালী-বিতর্কের উৎস

বিতর্কের শুরু ভারতীয় পরিচালক লীনা মানিমেকালাইয়ের একটি তথ্যচিত্রের পোস্টার নিয়ে। ছবিতে একজন কৃষ্ণাঙ্গ মা সিগারেট খাচ্ছেন এবং এলজিবিটি সম্প্রদায়ের পতাকা ধারণ করেছেন। এই ছবি নিয়েই ছড়িয়েছে বিতর্ক। পরিচালকের পাশে দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মহুয়া।

মহুয়া বলেন, “মা কালীকে আপনি কী ভাবে গ্রহণ করবেন তা আপনার ব্যাপার। আমার কাছে মা কালী একজন আমিষভোজী এবং মদ্যপানকারী দেবী। এই ছবির পোস্টার নিয়ে আমার কোনো আপত্তি নেই”।

আরও পড়তে পারেন:

কালী-বিতর্ক: মহুয়া মৈত্রকে কেন বরখাস্ত করছেন না? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্ন চলচ্চিত্র নির্মাতার

রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারে ফের বাড়ল ৫০ টাকা, আপনাকে কত দিতে হবে

ভারতের দৈনিক কোভিড সংক্রমণে সামগ্রিক বৃদ্ধি নেই, মৃত্যুহার নগণ্য

আদালতে গড়াল কেন্দ্র বনাম টুইটার যুদ্ধ!

মুখ্যমন্ত্রী না হতে পেরে অসন্তুষ্ট? জল্পনা ওড়ালেন খোদ দেবেন্দ্র ফড়ণবীস

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন