প্রতীকী ছবি

কলকাতা: অবশেষে স্বস্তি! ঘরে ফিরলেন ইরানে আটকে থাকা বাংলার ১১ জন স্বর্ণশিল্পী৷ বুধবার ভোরে দমদম বিমানবন্দরে নামেন তাঁরা৷

ইরানে কাজ করতে গিয়ে আটকে পড়েছিলেন এ রাজ্যের এগারো স্বর্ণশিল্পী। সে খবর চাউর হতেই নড়েচড়ে বসে রাজ্য প্রশাসন। তাঁদের ফিরিয়ে আনার জন্য উদ্যোগী হয় সিআইডি। কিন্তু, কেন আটকে রাখা হয়েছিল তাঁদের? আটকে পড়া স্বর্ণশিল্পী গিয়াসউদ্দিন মল্লিক জানান, ‘‘সব কিছু ঠিকঠাকই চলছিল৷ বেতনও দেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু, ইরানের মুদ্রার দাম পড়ে যাওয়ায় সমস্যা শুরু হয়৷ লোকসানের মুখে পড়ে কোম্পানি বন্ধ হয়ে যায়৷ আমরা বাড়ি ফিরতে চাইলে ঠিকা সংস্থার কর্মীরা আমাদের পাসপোর্ট আটকে রাখে।” এর পর বাড়িতে ভিডিও কল করে সব সমস্যার কথা জানান গিয়াসউদ্দিন।

আরও পড়ুন অত্যাধুনিক ইঞ্জিনহীন ট্রেন ১৮-এ সংযুক্ত হতে পারে হাওড়া এবং দিল্লি

এই স্বর্ণশিল্পীদের ফিরিয়ে আনার জন্য ন্যাশনাল অ্যান্টি ট্র্যাফিকিং ব্যুরোর সঙ্গে যোগাযোগ করে সিআইডি৷ ব্যুরোর তরফে ইরানের ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বর্ণশিল্পীদের ফিরিয়ে আনার তৎপরতা শুরু হয়৷ যুদ্ধকালীন তৎপরতায় স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় রাখার কাজও শুরু হয়৷

জানা গিয়েছে, সাত মাস আগে পাণ্ডুয়ার এক এজেন্ট এই শিল্পীদের ইরানে নিয়ে যায়৷ অভিযোগ, পঞ্চাশ হাজার টাকা বেতনের টোপ দেওয়া হলেও মাসে ২৭ হাজার টাকার বেতন পেতেন তাঁরা। এমনকি শেষের কয়েক মাস এই শ্রমিকরা বেতন ঠিকঠাক পেতেন না বলেও অভিযোগ। এই এজেন্টের ব্যাপারে খোঁজখবর নিতে শুরু করেছে সিআইডি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here