দার্জিলিং: আলাদা রাজ্য, গোর্খাল্যান্ডের দাবি থেকে সরে এল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। পৃথক রাজ্য নয়, বাংলার মধ্যে থেকেই সর্বোচ্চ স্বায়ত্তশাসনের দাবি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়ে দিল তারা। দার্জিলিংয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর এমনটাই জানালেন মোর্চার নেতা রোশন গিরি।

রোশন-সহ মোর্চার তিন নেতা মমতার সঙ্গে বৈঠক করেন সোমবার। পাহাড়ের সার্বিক উন্নয়নে জিটিএ-এর ব্যর্থতার কথা মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়ে বোর্ডের স্বায়ত্তশাসনের প্রসঙ্গ তুলেছেন মোর্চার নেতারা। রোশন পরে বলেন, ‘‘সরকার দ্রুত জিটিএ নির্বাচন চাইছে। কিন্তু আমরা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছি, জিটিএ সম্পূর্ণ ব্যর্থ। তাই ভোটের আগে সেখানে কিছু রাজনৈতিক সমাধানের প্রয়োজন আছে।’’

রোশনের কাছে জানতে চাওয়া হয়, রাজনৈতিক সমাধান বলতে তিনি কী বোঝাচ্ছেন। জবাবে মোর্চার ওই নেতা বলেন, ‘‘সমাধান বলতে এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ স্বায়ত্তশাসন।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘মাননীয়া আমাদের সব কথা শুনেছেন। উনি আমাদের কাছে এ বিষয়ে একটি খসড়াও চেয়েছেন। আগামী ২ এপ্রিল কালিম্পঙে দলের একটি বৈঠক রয়েছে। তার পর ৩ এপ্রিল রাজ্যকে চিঠি দিয়ে সবটা জানাব আমরা।”

দু’-তিন মাসের মধ্যে জিটিএ নির্বাচন করার পরিকল্পনা নিয়ে পাহাড়ে চারটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সোমবার বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও ইন্দ্রনীল সেন। বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘সকলেই চাইছে দ্রুত নির্বাচন হোক। চেষ্টা করছি যাতে আগামী দু’-তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন করা যায়।”

আরও পড়তে পারেন

বিশ্ব জলবায়ু ধর্মঘটে সংহতি জানিয়ে ‘পরিবেশ বিষয়ক নাগরিক উদ্যোগ’-এর কর্মসূচি পালিত নৈহাটি, কল্যাণীতে

গরিফায় ‘পরিবেশ বিষয়ক নাগরিক উদ্যোগ’-এর তৃতীয় প্রচার কর্মসূচিতে ‘জীবনের জয়গান’

পরিবেশের বিপর্যয় মানে সভ্যতার বিলুপ্তি – এই আওয়াজ তুলে সংঘবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়ে কল্যাণীতে প্রচার কর্মসূচি

পরিবেশ রক্ষার দাবিতে নৈহাটিতে ‘পরিবেশ বিষয়ক নাগরিক উদ্যোগ’ আয়োজিত অবস্থান বিক্ষোভ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন