কলকাতা: এ বার রাজ্যের সরকারি স্কুলগুলিতে চালু হতে চলেছে ইংরেজি মাধ্যম।

ছাত্রসংখ্যার নিরিখে বেসরকারি স্কুলগুলির তুলনায় ক্রমশই পিছিয়ে পড়ছে সরকারি স্কুল। এর অন্যতম কারণ শিক্ষাদানের মাধ্যম। তাই বেসরকারি স্কুলগুলির সঙ্গে টেক্কা দিতে প্রাথমিক স্তর থেকেই ইংরেজি মাধ্যমে শিক্ষাদানের ব্যবস্থা করছে রাজ্য। সরকারি স্কুলগুলিতে বাংলা মাধ্যমের পাশাপাশিই চলবে ইংরেজি মাধ্যম। শুরুতে প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানো হবে। শুক্রবার হেয়ার স্কুলের দুশো বছর উদযাপন অনুষ্ঠানে রাজ্য সরকারের এই পরিকল্পনার কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সরকারি স্কুলগুলিতেও যে ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানো উচিত তা আগেই ভেবেছিল রাজ্য। তাই পৃথক ইংরেজি মাধ্যমের বোর্ড গড়ার কথাও জানিয়েছিল রাজ্য। ইতিমধ্যেই একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে বাংলার পাশাপাশি পৃথক শাখা খুলে ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানো হয়। এ বার প্রাথমিকে ও জুনিয়ার মাধ্যমিকেও আসতে চলেছে ইংরেজি।

শিখামন্ত্রী বলেন, কলকাতার বুকে অনেক প্রাথমিক স্কুল আছে যেখানে ছাত্র নেই, কিন্তু শিক্ষক আছে। এই স্কুলগুলিকে বাঁচাতে হবে। তাই ইংরেজি মাধ্যমে পড়ানোর ভাবনা শুরু হয়েছে। তবে ইংরেজি থাকবে, বাংলা থাকবে না, তা নয়। দু’টোই পাশাপাশি চলবে।

হেয়ার স্কুল কলকাতার অন্যতম প্রাচীন স্কুল। অথচ গত কয়েক বছর ধরে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় স্থান হচ্ছে না এই স্কুলের। এতে উদ্বেগ প্রকাশ করেন পার্থবাবু।

দুশো বছর বয়স হল কলকাতার হেয়ার স্কুলের। শিক্ষামন্ত্রী ছাড়াও শুক্রবারের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, ক্রেতাসুরক্ষামন্ত্রী সাধন পাণ্ডে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন