ওয়েবডেস্ক: রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠির ডাকা চার প্রধান রাজনৈতিক দলকে নিয়ে ডাকা বৈঠক শেষ হল। বৃহস্পতিবার রাজ্যপালের ডাকা এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল, বিজেপি, সিপিএম এবং কংগ্রেসের মুখ্য প্রতিনিধিরা।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে এসে সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম বলেন, “রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার অবনতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এমনকী ডাক্তারদের যে ভাবে হুমকি দেওয়া হচ্ছে, তাতে স্পষ্ট আমাদের রাজ্যের প্রশাসন ভেঙে পড়েছে। বৈঠকে আলোচনা হয়েছে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি যেন কোনো ভাবেই বিঘ্নিত না-হয়, সে দিকে নজর রাখতে হবে”।

বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, “রাজ্যপাল আমাদের ডেকেছিলেন বাংলার শান্তি ফেরানোর জন্য। এতেই প্রমাণ বাংলায় শান্তি নেই, তা না হলে রাজ্যপালকে এ ভাবে ডেকে বলেত হতো না ‘কী ভাবে শান্তি ফিরবে, সে কথা আপনারা বলুন’। তিনি বলেছেন, ‘আপনারা সকলে মিলে বাংলার শান্তির জন্য কাজ করুন’। বাংলার মানুষ গণতন্ত্র ফেরত চাইছেন, রাজ্যপাল আজকের বৈঠকের মাধ্যমেই সে কথা প্রকাশ করেছেন”।

কংগ্রেসের তরফে রাজ্যপালের ডাকা বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন দলের প্রদেশ সভাপতি সোমেন মিত্র। তিনি বলেন, “এ রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমাদের বক্তব্য আমরা জানিয়েছি। কেন্দ্রে বিজেপি সরকার, রাজ্যে তৃণমূলের। ফলে তাদের দু’জনকেই বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে বাংলার শান্তি ফেরাতে”।

সূত্রের খবর, ওই বৈঠকে রাজ্যপাল বলেন, কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তি যেন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য না করেন।

অন্য দিকে তৃণমূলের তরফে পার্থ চট্টোপাধ্যায় উপস্থিত থাকলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বৈঠকের নেপথ্যে বিজেপির অঙ্গুলিহেলনকেই নিশানা করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here