siliguri head master

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: দুই শিক্ষক এবং পরিচালন সমিতির নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে সাসপেন্ড করা হল শিলিগুড়ির বুদ্ধভারতী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক স্বপ্নেন্দু নন্দীকে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, স্কুলের এক শিক্ষিকার সার্ভিস বুক বিকৃত করেছেন তিনি।

ওই শিক্ষিকা দেবী তলাপাত্র জানান, তিনি এই স্কুলে শিক্ষিকা হিসাবে কাজে যোগ দেন ১৯৮৭ সালের ১ এপ্রিল। ৩০ তারিখ তাঁর অবসর নেওয়ার কথা। তাঁর অভিযোগ, স্কুলের প্রধান শিক্ষক তাঁর সার্ভিস বুকে স্কুলে যোগ দেওয়ার তারিখ দেখিয়েছেন ১৯৮৯ সালের ১ এপ্রিল, যদিও সরকারি ভাবে কাজে যোগদানের বছর ১৯৮৭-ই রয়েছে। এর ফলে অবসরের পরে তিনি পেনশন-সহ অন্যান্য সুবিধা ঠিকঠাক পাবেন না।

ঘটনার ব্যাপারে জানতে পেরেই ওই শিক্ষিকা সমস্ত বিষয়টি স্কুলের পরিচালন সমিতিকে জানান। তার পরে স্কুল পরিচালন সমিতির পক্ষ থেকে সমস্ত ঘটনা লিখিত ভাবে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সদর দফতরে পাঠানো হয়। সমস্ত বিষয় জানার পরে গত ১৩ তারিখ স্কুলের প্রধান শিক্ষক-সহ পরিচালন সমিতির সভাপতি এবং স্কুলের টিচার ইনচার্জকে ডেকে পাঠানো হয় পর্ষদ অফিসে।

উভয়পক্ষের বক্তব্য শোনার পর, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হয়েছে প্রধান শিক্ষককে। ওই শিক্ষিকার আরও অভিযোগ, স্বপ্নেন্দুবাবু তাঁকে বিভিন্ন সময় মানসিক ভাবেও চাপ সৃষ্টি করতেন। তাঁর দাবি, অবিলম্বে সমস্ত ঘটনা কী তা খতিয়ে দেখুক পর্ষদ।

অন্য দিকে স্বপ্নেন্দুবাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন পরিচালন সমিতির সভাপতি বিবেকানন্দ সাহাও। তিনি বলেন, “স্কুলের বেশ জরুরি কাগজপত্র তাঁর ঘরে তালাবন্দি করে রেখেছেন। তিনি নিজে স্কুলেও আসছেন না এবং তাঁর ঘরের চাবিও দিচ্ছেন না। যার ফলে আগামী দিনে স্কুল চালাতে গেলে সমস্যা হতে পারে। আমরা তাঁকে একটি চিঠি পাঠিয়েছি এবং তার উত্তরের অপেক্ষায় রয়েছি।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক স্বপ্নেন্দুবাবুর দাবি, তিনি কোনো রকম সাসপেনশনের নোটিস পাননি। পর্ষদের ডাকা মিটিং-এ যা বলার বলে এসেছেন বলে দাবি করেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেছেন স্বপ্নেন্দুবাবু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here