snake
এই অ্যাপের মাধ্যমে সর্পাঘাতে মৃত্যুর সংখ্যা কমানো যাবে বলে আশা। প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

কলকাতা: সর্প দংশনের চিকিৎসার ক্ষেত্রে মুশকিল আসান এ বার মোবাইল অ্যাপেই। সোমবার রাত থেকে ‘স্নেকবাইট প্রিভেনশন অ্যান্ড রেসকিউ’ নামের একটি অ্যাপ চালু করেছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। স্বাস্থ্যভবন, তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ ও আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ‘পয়জন ইনফরমেশন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার’ একযোগে তৈরি করেছে এই বিশেষ অ্যাপ।

অ্যাপটি মোবাইলে ডাউনলোড করলে তা জানিয়ে দেবে নিকটবর্তী কোন ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কতগুলি অ্যান্টিভেনম সিরাম মজুত রয়েছে। ‘স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও এভিএস স্টক’-এ ক্লিক করলেই ১-১০ কিলোমিটারের মধ্যে কোন হাসপাতাল বা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে সেই মুহূর্তে কত ‘এভিএস’ রয়েছে, জানা যাবে। দংশনকারী সাপ সম্পর্কে রোগীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরজি করের বিশেষজ্ঞরা বলে দেবেন, সাপটি বিষধর কি না। সেই মতো চলবে চিকিৎসা।

অ্যাপটিতে রয়েছে পাঁচটি বিভাগ। সুবিধা রয়েছে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় ব্যবহার করার। অ্যাপ সম্পর্কে আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেন্সিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান চিকিৎসক সোমনাথ দাস আনন্দবাজার অনলাইন-এর কাছে জানান, “এই অ্যাপ সচেতন ভাবে ব্যবহার করলে সর্পাঘাতে মৃত্যুর সংখ্যা কমানো যাবে”।

প্রারম্ভিক পরামর্শ হিসেবে অ্যাপের ‘প্রাথমিক চিকিৎসা’ বিভাগে জানানো হয়েছে, দংশনের অঙ্গ নাড়ানো যাবে না। মোটা শাড়ির পাড় বা গজ দিয়ে ব্যান্ডেজ করে রক্তপাত বন্ধ করতে হবে। ওই অঙ্গের পিছনে লম্বা লাঠি দিয়ে দুই প্রান্তকে শক্ত করে বাঁধতে হবে। যাতে দংশনের অংশের উপর ও নীচের অস্থিসন্ধি লাঠি ছাড়িয়ে নড়াচড়া করতে না-পারে। এ ভাবেই দ্রুত স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ‘অ্যান্টিস্নেক ভেনম সিরাম’ (এভিএস) দিতে হবে। ক্ষতস্থান দড়ি দিয়ে বাঁধা ক্ষতিকর-সহ কী কী করা যাবে না, তা-ও বলা হয়েছে।

বিষধর ও বিষহীন ১৮ প্রজাতির সাপের পরিচিতি ও সর্পদংশন থেকে রক্ষা পেতে কী করণীয়, সে সবও রয়েছে অ্যাপে। দংশনের স্থান বা সাপের ছবি তুলে আপলোড করলে, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে প্রয়োজনীয় বিষয় জানিয়ে দেবে আরজি কর মেডিক্যাল কলেজের ‘পয়জন ইনফরমেশন সেন্টার’।

এ ছাড়াও অ্যাপে ২৩টি জেলার সর্প-বন্ধুর নাম, ফোন নম্বর রয়েছে। আইসিএমআর-এর সর্প-দংশন প্রশিক্ষণের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজর তথা স্বাস্থ্য দফতরের প্রশিক্ষণ কমিটির প্রশিক্ষক দয়ালবন্ধু মজুমদার সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, “ঘরে সাপ ঢুকেছে, কী ভাবে বার করব জানতে চেয়ে ফোন আসে। এই তালিকা থেকে উদ্ধারকারীর সন্ধান মিলবে”। সবমিলিয়ে এবার থেকে যাতে সহজেই সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা নিয়ে যাবতীয় সুরাহা মিলবে এই অ্যাপে। পশ্চিমবঙ্গের জনচিকিৎসায় যা এক বিশেষ পদক্ষেপ বলে ইতিমধ্যেই দাবি করছে স্বাস্থ্য দফতর।

আরও পড়তে পারেন: 

বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে আজ ডাক ধর্মঘট দেশ জুড়ে

পুলিশের সামনে তাঁকে খুনের হুমকি দিয়েছেন দলেরই এক নেতা, মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি তৃণমূল বিধায়কের

আজ হাজিরা না দিলে অনুব্রতর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা, ইঙ্গিত দিল সিবিআই

সামরিক মহড়ার আড়ালে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে চিন, দাবি তাইওয়ানের বিদেশমন্ত্রীর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন