উষ্ণতম দিন, শুকনো গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, স্বস্তির ঝড়বৃষ্টি কবে?

summer in bengal

খবর অনলাইনডেস্ক: শুকনো গরমে নাজেহাল অবস্থার দক্ষিণবঙ্গের। মরশুমে প্রথম বার ৪০ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলল পশ্চিমাঞ্চলের পারদ। কলকাতা-সহ (Kolkata) বাকি জায়গাতেও উষ্ণতম দিন রেকর্ড করে ফেলল। বাড়ি বসে থাকলেও সাধারণ মানুষ এখন একটু ঝড়বৃষ্টির (Norwester) প্রার্থনা করতে শুরু করেছেন।

দেড় সপ্তাহ হল দক্ষিণবঙ্গের পারদ ক্রমশ চড়ছিল। তবে সোমবার গরমের দাপট আরও বাড়ল। এ দিন কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.৩ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়। শহরের উপকণ্ঠের ব্যারাকপুরে (Barrackpore) পারদ উঠে গিয়েছিল ৩৯.৪ ডিগ্রিতে।

কলকাতায় পারদ ৪০-এর কাছাকাছি না পৌঁছোলেও পশ্চিমাঞ্চলে তা পৌঁছে গিয়েছে। বাঁকুড়ায় এ দিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯.৮ ডিগ্রি। অন্য দিকে পারদ ক্রমশ বেড়েছে পানাগড় (৩৮.৩), খড়গপুর (৩৮.৫), মেদিনীপুরেও (৩৮.৭)।

এই মুহূর্তে ঝাড়খণ্ড (Jharkhand), ছত্তীসগঢ় (Chattisgarh) আর মধ্যপ্রদেশে (Madhya Pradesh) প্রবল গরম চলছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কোথাও কোথাও ৪০ পেরিয়ে ৪২-৪৩ ডিগ্রির ঘরে পৌঁছে গিয়েছে। মধ্য ভারত থেকে গরম হাওয়া ঢুকছে পশ্চিমবঙ্গে আর সেই কারণেই এই তীব্র গরম।

তবে ৪৮ ঘণ্টা পর কিছুটা স্বস্তির দেখা মিলতে পারে বলে জানা গিয়েছে। বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা (Weather Ultima) জানাচ্ছে, বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে ঝড়বৃষ্টির অনুকূল পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

সংস্থার কর্ণধার তথা আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা বলেন, “মঙ্গলবার থেকে মালদার ওপরে একটি নিম্নচাপ বলয় তৈরি হতে পারে। সেই সঙ্গে বঙ্গোপসাগরে একটি উচ্চচাপ বলয় থাকবে। এই দু’টি বলয়কে সংযোগ করবে একটি অক্ষরেখা। এই অক্ষরেখার প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গে বিপুল হারে জলীয় বাষ্প ঢুকতে পারে। এর থেকেই ঝড়বৃষ্টি হতে পারে।”

বর্তমানের এই গরম আবহাওয়াই আগামী দিনে বৃষ্টির পরিস্থিতিকে অনুকূল করে তুলতে পারে বলে মনে করছেন রবীন্দ্রবাবু।

আরও পড়ুন আর্থিক হাল ফেরাতে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে উপদেষ্টা কমিটি গঠন মুখ্যমন্ত্রীর

ফলে বুধবার থেকে গরমের দাপট কিছুটা কমতে পারে দক্ষিণবঙ্গে। যদিও মঙ্গলবারও গরমের তীব্র দাপট বজায় থাকবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.