উঠল তাপপ্রবাহের সতর্কতা, তৈরি হচ্ছে কালবৈশাখীর অনুকূল পরিস্থিতি

0

ওয়েবডেস্ক: রবিবার থেকে তাপপ্রবাহ-মুক্ত হতে চলেছে দক্ষিণবঙ্গ। জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর। পাশাপাশি রবিবার সন্ধ্যাতেই দক্ষিণবঙ্গের কিছু অঞ্চলে স্বস্তির ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফে।

গত কয়েকদিন যে পরিমাণ গরম এবং অস্বস্তিকর পরিস্থিতি কলকাতায় তৈরি হয়েছিল, শনিবার তার থেকে পরিস্থিতি কিঞ্চিৎ ভালো। এর মূল কারণ হাওয়ার দিক পরিবর্তন হওয়া। ফণী পরবর্তী পরিস্থিতিতে হাওয়ার ছন্দ বদলে গিয়েছিল। দক্ষিণপূর্ব দিকের বদলে দক্ষিণবঙ্গে হাওয়া ঢুকছিল মূলত পশ্চিম দিক দিয়ে। এর ফলে মধ্যে ভারতের পুরো গরম ঢুকে পড়ছিল বাংলায়। ফলে একদিনে যেমন চড়চড় করে বাড়ছিল পশ্চিমাঞ্চলের পারদ, তেমনই কলকাতায় তৈরি হচ্ছিল অস্বস্তিকর পরিস্থিতি।

এই পরিস্থিতি বিচার করে বৃহস্পতিবার দক্ষিণবঙ্গের আট জেলায় তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা দেয় আবহাওয়া দফতর। কোনো অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা যদি স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি বেশি হয়ে তা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যায়, সেই পরিস্থিতিকে বলে তাপপ্রবাহ। তবে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূমের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে পারদ ৪০ ডিগ্রি ছাড়ালেও খাতায় কলমে তাপপ্রবাহের কবলে পড়েনি। মুর্শিদাবাদ এবং ঝাড়গ্রামেই পারদ ছিল স্বাভাবিকের পাঁচ ডিগ্রি বেশি।

আরও পড়ুন ষষ্ঠ দফার ভোটে কেমন থাকবে রাজ্যের কেন্দ্রগুলির আবহাওয়া?

তবে শনিবার থেকে আবার পুরনো ছন্দ ফিরে পেয়েছে হাওয়া। পশ্চিমের বদলে ধীরে ধীরে ঢুকছে পুবালি হাওয়া। ফলে শনিবারের পরিস্থিতি কিঞ্চিৎ ভালো। এ দিন দুপুর আড়াইটেয় রেকর্ড হওয়া তাপমাত্রা জানাচ্ছে দক্ষিণবঙ্গের সব জায়গাতেই তাপমাত্রা আগের দিনের থেকে দেড় থেকে দুই ডিগ্রি কম। রবিবার অবশ্য আরও কিছুটা কমতে পারে পারদ। সেই কারণেই রবিবার থেকে তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা তুলে নেওয়া হয়েছে। তবে রবিবার পশ্চিমাঞ্চলের জায়গাগুলিতে পারদ ৪০ ডিগ্রির ওপরেই থাকতে পারে।

পাশাপাশি রবিবার থেকে কালবৈশাখীর অনুকূল পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। তবে কলকাতার ভাগ্য রবিবার ভালো নাও হতে পারে। কারণ ওই দিন মূলত পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলির জন্যই ঝড়বৃষ্টির সতর্কতা দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে সোমবার থেকে বুধবার বিকেলের মধ্যে কলকাতা এবং তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলেও ঝড়বৃষ্টি হবে বলে জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.