কলকাতা: সকালের প্রায় মেঘমুক্ত আকাশ দেখে কোনো আন্দাজই পাওয়া যায়নি দুপুরের পর ভাগ্যে কী রয়েছে। ফের প্রবল বৃষ্টিতে ভাসল কলকাতার বিস্তীর্ণ অংশ।

গত সোমবার মরশুমের প্রথম প্রবল বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়েছিল কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা। তারপর দু’দিন বৃষ্টি না হলেও ফের বৃহস্পতিবার বৃষ্টি হয় শহরে। কিন্তু উত্তর কলকাতায় জোর বৃষ্টি হলেও, দক্ষিণ ছিল কার্যত শুকনো। কিন্তু শুক্রবারের বৃষ্টি গোটা শহরেই হয়েছে।

এ দিন সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ প্রথমে মেঘাচ্ছন্ন হতে শুরু করে আকাশ। সেই সময় কলকাতার কিছু কিছু অংশে ভালো বৃষ্টিও হয়। দুপুর আড়াইটের পর শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। প্রথমে কলকাতার উত্তরাংশে বৃষ্টি শুরু হলেও, ধীরে ধীরে দক্ষিণাংশেও ছড়িয়ে পড়ে। কলকাতার পাশাপাশি জোর বৃষ্টি হয়েছে পার্শ্ববর্তী হুগলি, নদিয়া, উত্তর ২৪ পরগণা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণায়। সেই সঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে জোর বৃষ্টি হয়েছে মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, আসানসোলেও।

এই বৃষ্টি সম্পূর্ণ ভাবে বর্ষার বৃষ্টি বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা। এই বৃষ্টির কারণ বোঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, “এই মুহূর্তে মৌসুমী অক্ষরেখা দক্ষিণবঙ্গের ওপর দিয়ে বিস্তৃত। সেই সঙ্গে যোগ হয়েছে দু’টি নিম্নচাপ অক্ষরেখা। একটি বিস্তার করছে উপকূল দক্ষিণবঙ্গ থেকে বাংলাদেশ পর্যন্ত, অন্যটি রয়েছে বিহার-ঝাড়খণ্ড অঞ্চলে। এর প্রভাবেই এই বৃষ্টি।”

তবে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের মতে এই বৃষ্টির স্থায়িত্ব খুব বেশি হলে শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত। শনিবার সকালে আকাশ পরিষ্কার থাকারই সম্ভাবনা জানিয়েছেন তাঁরা। তবে মৌসুমী অক্ষরেখা দক্ষিণবঙ্গের ওপরে থাকায় এখন রোজই দুপুরের পর এরকম বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানানো হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here