অনাবৃষ্টির পশ্চিমাঞ্চলে অবশেষে ভারী বর্ষণ, এখনও চাতক পাখি নদিয়া-মুর্শিদাবাদ

0

কলকাতা: অবশেষে স্বস্তির ভারী বৃষ্টি হল রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে। বুধবার দুপুরের পর থেকে বাঁকুড়া, পুরুলিয়ার বিভিন্ন অংশে প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে ওই সব জেলায় বৃষ্টির ঘাটতি কিছুটা হলেও কমল। যদিও এখনও চাতক পাখি হয়েই রয়েছে নদিয়া-মুর্শিদাবাদ।

বুধবার দুপুরের পর থেকেই রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে জোর ঝড়বৃষ্টি হয়। মৌসুমি অক্ষরেখার কারণে ওই অঞ্চলে বজ্রগর্ভ মেঘের সৃষ্টি হয়। তার থেকেই নামে স্বস্তির ঝড়বৃষ্টি। বুধবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত বাঁকুড়া শহরে ৫১ এবং পুরুলিয়া শহরে ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। তবে ওই সব জেলায় গ্রামাঞ্চলে বৃষ্টির পরিমাণ আরও অনেকটাই বেশি ছিল।

উল্লেখ্য, চলতি মরশুমে বৃষ্টি খুব কম হচ্ছে। দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টি ঘাটতি বাড়তে বাড়তে চল্লিশ শতাংশ ছুঁয়ে ফেলেছে। তবে বুধবারের বৃষ্টিতে সেই ঘাটতি কিছুটা হলেও কমবে।

কিন্তু নদিয়া-মুর্শিদাবাদ নিয়ে চিন্তার শেষ নেই। এই দুই জেলাতেই বৃষ্টির ঘাটতি বেড়ে ৭০ শতাংশ হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ, চলতি মরশুমে এখনও পর্যন্ত যত বৃষ্টি হওয়ার কথা, হয়েছে তার ৩০ শতাংশ মাত্র। আর বুধবারের ওই ভারী বৃষ্টির কোনো ছাপ এই দুই জেলায় পড়েওনি। ফলে সমস্যা আরও বেড়েছে।

এই পরিস্থিতিতে এই দুই জেলায় ভারী বৃষ্টি কবে হবে, সেটাই এখন বড়ো প্রশ্ন। আপাতত ভারী বর্ষণের কোনো ইঙ্গিতও পাওয়া যাচ্ছে না।

আরও পড়তে পারেন:

রাজ্যসভায় ধনখরকে কী ভাবে স্বাগত, ভাবছে তৃণমূল

মমতার সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্যনেতাদের কথা শুনলেন না মোদী!

বদলে গেল রাজ্য মন্ত্রীসভা! দায়িত্ব কমল একাধিক পুরনো মন্ত্রীর

কোভিডের সঙ্গে সিএএ বাস্তবায়নের কী সম্পর্ক

জাওয়াহিরি হত্যার বদলা! পাল্টা হামলা চালাতে পারে আল কায়দা, সতর্কতা মার্কিন প্রশাসনের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন