Connect with us

হুগলি

সিঙ্গুরে কৃষি হাবের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Published

on

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: হুগলির সিঙ্গুরে প্রায় ১০ একর জমিতে গড়ে তোলা হবে কৃষি হাব। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, সিঙ্গুরে কৃষি-ভিত্তিক শিল্প গড়ে তোলা হবে।

গত বুধবার সিঙ্গুরে পশ্চিমবঙ্গ কিষাণ ও খেতমজুর সংগঠনের ডাকে ‘মেঠো প্রতিবাদ আন্দোলনে’র কর্মসূচি ছিল। ওই কর্মসূচিতেই ফোনে কৃষকদের উদ্দেশে বার্তা দেন মমতা।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “সিঙ্গুরে কৃষি হাব গড়ে তোলা হবে। এই প্রকল্পে উপকৃত হবেন স্থানীয় মানুষ। বাড়বে কর্মসংস্থান”।

কৃষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “বিজেপি ফড়েদের নিয়ন্ত্রণ করে চাষিদের কাছ থেকে পণ্য কম দাম কিনে বিদেশে পাঠিয়ে দিচ্ছে। যার ফলে আলু-পেঁয়াজের দাম বাড়ছে। সবই যদি বাংলার বাইরে চলে যায়, তা হলে দেশের মানুষ কী খাবে? বিজেপির কাছে যাবেন না। ছোটোখাটো ভুলত্রুটি কেউ করলে, তা সংশোধন করে নিতে হবে। মানুষ মাত্রেই ভুল করে থাকে, সেই ভুল সংশোধন করে নিতে হবে”।

এ প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, তিনি মনে করেন সিঙ্গুরে এক দিকে কৃষি , অন্য দিকে হাইওয়ে ধরে শিল্প তৈরি হোক। তাতে এলাকার উন্নয়ন হবে। সিঙ্গুরে অ্যাগ্রো-ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক হচ্ছে। অ্যাগ্রো-প্রসেসিং কৃষিজাত পণ্য নিয়ে কাজ করবে। বহু মানুষের চাকরি হবে।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, রাজ্যে বামফ্রন্ট সরকারের জমানায় সিঙ্গুরে টাটার ন্যানো প্রকল্পের বিরোধিতা তৃণমূলকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়। সিঙ্গুরে টাটা-বিরোধী আন্দোলন ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের শক্ত ভিত গড়ে দেয়। আসছে বছর রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। ফের সিঙ্গুর থেকেই নতুন বার্তা দিতে চাইছেন তৃণমূলনেত্রী।

আরও পড়তে পারেন: হাওড়া থেকে যোধপুর, বিকানেরের জন্য সপ্তাহে সাত জোড়া বিশেষ ট্রেন

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

হুগলি

পুজোর আগেই খুলবে চাপদানীর নর্থব্রুক জুট মিল

শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটকের উদ্যোগে কয়েকবার ত্রিপাক্ষিক বৈঠক হলেও তা ব্যর্থ হয়। মঙ্গলবার ফের একটি ত্রিপাক্ষিক বৈঠক বসে।

Published

on

নর্থব্রুক জুটমিল

নিজস্ব প্রতিনিধি : শ্রমিকদের বোনাস দিয়ে পুজোর আগেই খুলে যাবে হুগলির চাপদানী নর্থব্রুক জুট মিল। গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ থাকার ফলে কর্মহীন হয়ে পড়েন প্রায় চার হাজার শ্রমিক।

মিল বন্ধ হয়ে যাবার ফলে শ্রমিকরা কার্যত অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটাচ্ছিলেন। মিলটি চালুর দাবিতে সমস্ত ট্রেড ইউনিয়গুলি যৌথ ভাবে আন্দোলন শুরু করেন।

শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটকের উদ্যোগে কয়েকবার ত্রিপাক্ষিক বৈঠক হলেও তা ব্যর্থ হয়। মঙ্গলবার ফের একটি ত্রিপাক্ষিক বৈঠক বসে। এ দিনের বৈঠক ফলপ্রসূ হয়।

মালিকপক্ষের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আগামী ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার থেকে মিল ফের চালু হবে। তার আগে ১৯ অক্টোবর শ্রমিকদের বোনাস দেওয়া হবে। ৯জন ছাঁটাই শ্রমিকদের মধ্যে ৪জনকে ওইদিন পুনর্বহাল করা হবে এবং বাকিদের এক মাস পর নিয়োগ করা হবে।

হুগলি জেলায় বন্ধ হয়ে থাকা অন্য চটকলগুলিও দ্রুত খোলার উদ্যোগ নেওয়ার জন্য শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটককে অনুরোধ জানান স্থানীয় বিধায়ক আবদুল মান্নান।

খবর অনলাইনে আরও পড়ুন :

আরও ৩৯২টি উৎসব স্পেশাল ট্রেন চালাবে রেল

Continue Reading

হুগলি

লোকাল ট্রেন চালুর দাবিতে এ বার রেল অবরোধ করে বিক্ষোভ হুগলির একাধিক স্টেশনে

সোনারপুরের পর এ বার হুগলি, পান্ডুয়া, বৈঁচি ও খন্ন্যান স্টেশনে বিক্ষোভ সাধারণ যাত্রীদের।

Published

on

রেল লাইনে স্লিপার

খবর অনলাইন ডেস্ক: লোকাল ট্রেন পরিষেবা পুনরায় চালু করার দাবিতে বিক্ষোভ হুগলি, পান্ডুয়া, বৈঁচি ও খন্ন্যান স্টেশনে।

২২ মার্চের পর থেকে করোনা লকডাউনের জেরে বন্ধ লোকাল ট্রেন পরিষেবা। আনলক পর্যায়ে ধাপে ধাপে একাধিক ক্ষেত্র খুলে গেলেও হেলদোল নেই লোকাল ট্রেন পরিষেবা নিয়ে। যে কারণে বিক্ষোভ বাঁধছে জেলায় জেলায়। এর আগে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার সোনারপুরে বিক্ষোভের পর রবিবার সকালে হুগলির পান্ডুয়া ও খন্ন্যান স্টেশনে বিক্ষোভ দেখালেন সাধারণ যাত্রীরা।

লোকাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ থাকলেও চালু রয়েছে স্পেশাল ট্রেন। রেল কর্মীদের জন্য বরাদ্দ সেই স্পেশাল ট্রেনে ওঠার দাবি ঘিরেই পরিস্থিতি জটিল হয়ে যায় বলে ঘটনায় প্রকাশ।

ঘটনার সূত্রপাত এ দিন সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ। রেলকর্মীদের জন্য বরাদ্দ স্পেশাল ট্রেনে ওঠার দাবি জানান সাধারণ যাত্রীরা। বর্ধমান-হাওড়া ডাউন মেন লাইন ধরে সেই সময় পান্ডুয়ায় আসে রেলের স্পেশাল পেট্রোলিং কার। সেই ট্রেনে উঠতে চেয়েই ধুন্ধুমার বাঁধে পান্ডুয়া স্টেশনে।

স্পেশাল ট্রেনে উঠতে দিতে হবে, সাধারণ যাত্রীদের এই দাবি নিয়েই বিতর্ক বাঁধে। বিক্ষোভকারীরা রেল লাইনের উপর বসে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। যার জেরে আটকে পড়ে রেলকর্মীদের স্পেশাল ট্রেন।

বিক্ষোভ আকারে বিস্তৃত হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় জিআরপি। তারা বিক্ষোভকারীদের বোঝানোর চেষ্টা করে। বিক্ষোভ মাত্রাছাড়া চেহারা নেয় হুগলি স্টেশনে। রেল লাইনে স্লিপার ফেলে হুগলি স্টেশনে অবরোধ করেন যাত্রীরা।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, “ট্রেন চলছে অথচ আমাদের উঠতে দেওয়া হচ্ছে না। লকডাউনের পর সব কিছুই খুলে গেছে। অথচ আমাদের যাওয়ার জন্য ট্রেন নেই। আমরা কী করে খাব? সে কথা আগে আমাদের বলে দিন। নইলে আমাদের বিক্ষোভ চলবে”।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার সোনারপুর স্টেশনেও একই ধরনের ঘটনার খবর পাওয়া যায়। স্পেশাল ট্রেনে সাধারণ যাত্রীরা ওঠার চেষ্টা করলে ধন্ধুমার কাণ্ড ঘটে যায়। অবরোধের পাশাপাশি স্টেশন ভাঙচুরেরও অভিযোগ ওঠে।

আরও পড়তে পারেন: অবিলম্বে সমস্ত লোকাল ট্রেন চালু করার দাবিতে শিয়ালদহ ডিআরএম অফিস যাচ্ছে এপিডিআর

Continue Reading

দুর্গা পার্বণ

চুঁচুড়ার বড়ো শীলবাড়ির দুর্গা দ্বিভূজা, শিবের ক্রোড়ে আসীন

দেবীর দুই হাত, এক হাতে তিনি বরদাত্রী এবং অন্য হাতে তিনি অভয়দায়িনী।

Published

on

বড়ো শীলবাড়ির দুর্গাপ্রতিমা।

শুভদীপ রায় চৌধুরী

আনুমানিক দশম শতক। উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যার রামগড় অঞ্চলের বণিক কুলপতি সনক আঢ্য তাঁর অনুগত ষোলোটি বণিক পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে বঙ্গে এসেছিলেন। বঙ্গে তখন মহারাজা আদিশূরের রাজত্ব চলছে। ষোলোটি বণিক পরিবারের অনুগত ৩০ জন বণিক অযোধ্যা থেকে অবিভক্ত বঙ্গের (অধুনা বাংলাদেশ) বিক্রমপুর হয়ে বর্ধমানের উজানিনগরে এসেছিলেন। সেই বণিক পরিবারের মধ্যে শীল বংশের পূর্বপুরুষও ছিলেন।

গোবর্ধন মিশ্রের কুলপুস্তক থেকে জানা যায়, এই শীল বংশের আদিপুরুষ ছিলেন মেঘু শীল। মেঘু শীলের অধস্তন চতুর্দশ পুরুষ প্রয়াগ শীল তাঁদের পারিবারিক কুলদেবতা শ্রীধর জিউকে নিয়ে বর্ধমানের পাঁচড়া গ্রামে চলে আসেন। প্রয়াগ শীলের অধস্তন অষ্টম পুরুষ চৈতন্য শীলের ভাই যাদব শীল পাঁচড়া গ্রাম থেকে ব্যাবসার জন্য সপ্তগ্রামে এসে বসবাস করেন।

শীল বংশের সুসন্তান যাদব শীল সম্ভবত সুলতানি শাসকদের সঙ্গে বাণিজ্যে যুক্ত ছিলেন এবং লাভ করেছিলেন ‘মল্লিক’ উপাধি। কিন্তু পারিবারিক বিবাদের কারণে পরিবার ভাগ হয়ে যায়। যাদব শীলের বংশধরেরা সপ্তগ্রামেই থেকে যান এবং চৈতন্য শীলের পরিবার বর্ধমানের পাঁচড়া গ্রামেই বসবাস করতে থাকেন।

এর কিছুকাল পরে অর্থাৎ ১৭৪১ সাল থেকে বাংলা জুড়ে শুরু হয় বর্গীদের তাণ্ডব। সেই আক্রমণের হাত থেকে বাঁচার জন্য শীল পরিবারের সদস্যরা সে বছরই বর্ধমান ত্যাগ করে ব্যান্ডেলের কাছে শাহগঞ্জে বসবাস শুরু করেন। শীল পরিবারের সদস্যরা ১৭৫৭ সাল অবধি সেখানেই বসবাস করেন।

বড়ো শীলবাড়ির ঠাকুরদালান।

শুধুমাত্র বর্গীদের আক্রমণই নয়, শুরু হয় ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সঙ্গে নবাব সিরাজের বিবাদ-পর্ব, যেখানে ব্রিটিশ জেনারেল রবার্ট ক্লাইভের সেনাদল চন্দননগর, হুগলি, ব্যান্ডেল অঞ্চলে লুটপাট চালায়। তার ফলে শাহগঞ্জ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই অবস্থায় নীলাম্বর শীল, যিনি পাঁচড়া গ্রামেই জন্মগ্রহণ করেছিলেন, চলে আসেন চুঁচুড়ার কনকশালিতে ১৭৫৮ সালে। কনকশালিতে বসবাস করার পর ১৭৬৩ সালে বর্তমান বড়ো শীল বাড়ি স্থাপিত হয়।

নীলাম্বর শীলের তৈরি করা বাড়িটিতে ইন্দো-ডাচ স্থাপত্যশৈলীর প্রভাব দেখা যায় এবং বাড়ির কেন্দ্রস্থলে রয়েছে এক অপূর্ব ঠাকুরদালান যা তৈরি করেছিলেন নীলাম্বর শীলের পুত্র মদনমোহন শীল ১৮০৩ সালে। এই ঠাকুরদালানেই রমরমা করে পুজো হয়ে আসছে দেবী দুর্গার।

শীলবাড়ির সদস্যদের কাছে জানতে পারা গেল যে অতীতেও দুর্গাপুজো হত তবে তা ছিল ঘটপুজো। পরবর্তী কালে সেই ঘটপূজোই মূর্তিপূজায় রূপান্তরিত হয় চুঁচুড়ার বাড়িতে স্থানান্তরিত হয়। উলটোরথের দিন কাঠামোপুজোর মাধ্যমে শুরু হয় শীলবাড়ির মৃন্ময়ী মূর্তি তৈরি করার কাজ। বলা বাহুল্য, হুগলির বণিক পরিবারগুলি চৈতন্যদেবের আমল থেকেই বৈষ্ণবধারায় বিশ্বাসী। তাই শীলবাড়ির পুজোও সম্পূর্ণ বৈষ্ণবমতে হয়, বলিদানের প্রথাই নেই এই বাড়িতে।

এই বাড়ির দেবী কিন্তু দশভূজা নন, তিনি শিবনন্দিনী অর্থাৎ শিবের ক্রোড়ে বসে আছেন তিনি। তাঁর দুই হাত, এক হাতে তিনি বরদাত্রী এবং অন্য হাতে তিনি অভয়দায়িনী। একচালার প্রতিমায় সপরিবার হরগৌরী বসে থাকেন শীলবাড়ির ঠাকুরদালানে। প্রতিমা ডাকের সাজের হয় এবং চালচিত্রে দুর্গার বিভিন্ন রূপ অঙ্কিত থাকে।

বড়ো শীল বাড়ির স্মারক।

ষষ্ঠীতিথিতে বোধন হয় মায়ের, সপ্তমীর দিন কলাবউকে স্নান করানো হয় এবং তার পর দেবীর চক্ষুদান ও মূলপূজা শুরু হয়। এই বাড়িতে চালের নৈবেদ্য, চিনির নৈবেদ্যর সঙ্গে থাকে নানা রকমের মিষ্টান্ন, ফল ইত্যাদি। আগে ভিয়েন বসিয়ে হরেক রকম মিষ্টি তৈরি করা হত। এখনও বাড়িতে মিষ্টি তৈরি হয় তবে পরিমাণে কম।

এই বাড়িতে পুজোর সময় ধুনো পোড়ানোর রীতি রয়েছে এবং মহাষষ্ঠীর দিন সন্ধিপূজায় ১০৮টি পদ্ম নিবেদন করে ১০৮টি দীপ জ্বালানো হয়। দশমীর দিন সকালে চিঁড়েভোগ হয় এবং সন্ধ্যায় দেবীবরণের পর সিঁদুরখেলা ও তার পর বিসর্জনের পথে রওনা।

বিসর্জন থেকে ফিরে এসে পরিবারের সদস্যা সকলে মিলে ঠাকুরদালানে শান্তির জল নেন এবং কুলদেবতার ঘরে গিয়ে তাঁকে প্রণাম করেন। চুঁচুড়ায় বড়ো শীলবাড়ির ঠাকুরদালানে গেলে অনুভূত হয় এই পরিবারের পুজো কেন এত বিখ্যাত এবং এই পরিবারের ঐতিহ্য কতটা প্রাচীন।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

অ্যান্টনি ফিরিঙ্গির শ্যুটিং করতে উত্তমকুমার এসেছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের জাড়া রাজবাড়িতে

Continue Reading

Amazon

Advertisement
uddhav thackeray
দেশ10 seconds ago

সংঘাত বাড়ল কেন্দ্রের সঙ্গে, সিবিআইকে তদন্তের জন্য সাধারণ সম্মতি প্রত্যাহার করল মহারাষ্ট্র সরকার

রাজ্য22 mins ago

‘সব বাঙালি বাংলাদেশি’, বাঙালি বিরোধী আন্দোলনে উত্তপ্ত মেঘালয়

বিদেশ41 mins ago

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেওয়া এক স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু ব্রাজিলে, তবে বন্ধ হচ্ছে না টিকার ট্রায়াল

রাজ্য58 mins ago

ষষ্ঠীর সকাল থেকে কলকাতায় ঝোড়ো হাওয়া, উপকূলে বৃষ্টি শুরু

Ekdalia Evergreen
কলকাতা7 hours ago

আজ ষষ্ঠী: পঞ্চমীর রাতে অচেনা কলকাতা, মাস্ক পরে প্রতিমাদর্শন

জীবন যেমন9 hours ago

এই লক্ষণগুলি থাকলে নির্ভয়ে পুজোতেই প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ফেলুন

শরীরস্বাস্থ্য9 hours ago

নিয়মিত মিষ্টি আলু খাবেন কেন? জেনে নিন

দেশ9 hours ago

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীতে চালু হয়ে যাচ্ছে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ

দেশ23 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫৪০৪৪, সুস্থ ৬১৭৭৫

দেশ2 days ago

আজ থেকে ৩৯২টি উৎসব স্পেশাল ট্রেন, দেখে নিন পূর্ণাঙ্গ তালিকা

দেশ2 days ago

কোভিড মহামারিতে বিহার ভোটে খরচের ঊর্ধ্বসীমা বাড়ল ১০ শতাংশ

দুর্গা পার্বণ3 days ago

পুজোয় রোজই বৃষ্টি, ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী সম্ভাবনা ভারী বর্ষণের

durga
রাজ্য3 days ago

রাজ্যের সব পুজো প্যান্ডেল ‘নো এন্ট্রি জোন’, ঐতিহাসিক রায় কলকাতা হাইকোর্টের

কলকাতা3 days ago

‘অন্য রকম পুজো ২০২০’, যৌনকর্মীদের পাশে সৃষ্টি ড্যান্স অ্যাকাডেমি

ক্রিকেট3 days ago

সামনের বছরের শুরুতেই ইংল্যান্ড আসছে ভারতে, ইডেনেই হয়তো দিন রাতের টেস্ট

reliance jio gigafiber
প্রযুক্তি3 days ago

এ বার বাজার গরম করতে পারে মাত্র আড়াই হাজার টাকার ৫জি স্মার্টফোন!

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা3 weeks ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা4 weeks ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা4 weeks ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

নজরে