গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে চাঞ্চল্য জয়নগরের গ্রামে, ধৃত স্বামী

jaynagar incident
নস্করদের বাড়ির সামনে প্রতিবেশীদের ভিড়। নিজস্ব চিত্র।

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে চাঞ্চল্য ছড়াল জয়নগর থানার পাঁচঘড়া গ্রামে। ঘটনায় মৃতার স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জয়নগর থানার পুলিশ।

জয়নগর থানার হরিনারায়পুর অঞ্চলের পাঁচঘড়া তাঁতিপাড়ার বাসিন্দা হরিসাধন নস্করের সাথে সঙ্গে প্রায় ১২ বছর আগে বিয়ে হয় বারুইপুর থানার রাজগড়া গ্রামের বাসিন্দা রাধা সর্দারের। বিয়ে হয় সামাজিক ভাবেই। ওই দম্পতির ছয় বছরের একটি পুত্রসন্তানও আছে। প্রতিবেশীরা জানান, হরিসাধন নাম-সংকীর্তনে খোল বাজিয়ে বেড়ায়। তেমন ভাবে টাকাপয়সা উপার্জনের চেষ্টা না করায় তাদের সংসারে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকত।

আরও পড়ুন শিশুপুত্র ও স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী

সোমবার সকালে রাধা তার দিদি রুমাকে ফোন করে জানায়, সে আজ দিদির বাড়িতে যাবে। বোন আসবে শুনে দিদি রুমা বোনের জন্য বাজারহাট করে রান্না করতে থাকেন। কিন্তু বেলা বারোটার সময় রুমার মেয়ের ফোনে একটি ফোন আসে। বলা হয়, তোমার মাসি রাধা নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে।

এ দিকে রাধার প্রতিবেশীরা তার বাড়ি থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখে দৌড়ে আসেন এবং দেখেন রাধা অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পড়ে আছে এবং তার ঘরের কিছু অংশে তখনও আগুন জ্বলছে। আর রাধার শ্বশুরবাড়ির সবাই পালিয়েছে। প্রতিবেশীরা আগুন নিভিয়ে জয়নগর থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে জয়নগর থানার পুলিশ অগ্নিদগ্ধ রাধাকে নিয়ে স্থানীয় পদ্মেরহাট গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ মৃতদেহ ময়না তদন্তে পাঠায়।

এ দিকে রাধার বাপেরবাড়ির লোকেরা রাধার স্বামী হরিসাধন-সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে জয়নগর থানার পুলিশ স্বামী হরিসাধন নস্করকে গ্রেফতার করে এবং ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.