হাওড়ায় উদ্ধার হওয়া টাকা। ফাইল ছবি

কলকাতা: ক্রমশ জটিল হচ্ছে ঝাড়খণ্ডের তিন বিধায়ক সংক্রান্ত মামলা। টাকা-সহ বিধায়ক গ্রেফতারির কাণ্ডে এ বার নয়া মোড়। কংগ্রেস বিধায়কদের বিরুদ্ধে জালিয়াতি এবং প্রতারণার দু’টি নতুন ধারা জুড়েছে সিআইডি।  বিধায়কদের জামিনের আবেদন শুনলই না কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ।

শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের সিঙ্গল বেঞ্চ মামলাটি ছেড়ে দেয়। বিধায়কদের জামিনের আবেদন শুনলই না সিঙ্গল বেঞ্চ। নতুন দুই ধারা জুড়তেই হয়তো মামলাটি ছেড়ে দেওয়া হল। অনুমান করা হচ্ছে, এর পর ডিভিশন বেঞ্চে উঠতে পারে বিধায়কদের জামিনের মামলাটি।

গত ৩০ জুলাই শনিবার রাতে হাওড়ার পাঁচলা-রানিহাটি মোড়ে গ্রেফতার করা হয় ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়ককে। ধৃত বিধায়কদের থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল নগদ ৪৯ লক্ষেরও বেশি টাকা। গত বুধবার ঝাড়খণ্ডের জামতারায় ধৃত বিধায়ক ইরফান আনসারির বাড়িতে তল্লাশি চালায় সিআইডির একটি দল। তল্লাশি চালিয়ে নগদ পাঁচ লক্ষ টাকা এবং একটি গাড়ি বাজেয়াপ্ত করেন রাজ্য গোয়ন্দারা।

বৃহস্পতিবারই সিআইডিকে ভর্ৎসনা করেছিল বিচারপতি তীর্থঙ্করের একক বেঞ্চ। মামলাটি ভুল আদালতে চলছে বলে সিআইডিকে দোষারোপ করার পাশাপাশি তাঁর প্রশ্ন ছিল, এক্তিয়ারের বাইরে গিয়ে নিম্ন আদালতের বিচারক কী ভাবে তিন বিধায়ককে হেফাজতে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন? আদালতের ভর্ৎসনার পর সিআইডির গোয়েন্দারা তড়িঘড়ি বিধায়কদের মামলা নিয়ে যান বিশেষ আদালতে। তিন বিধায়কদের বিরুদ্ধে দু’টি নতুন ধারা, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৬৭ এবং ৪৬৮-তে মামলা করার আর্জি জানান। দু’টি ধারা জালিয়াতি ও প্রতারণা সংক্রান্ত আইন। যাতে দোষী প্রমাণিত হলে সাজাপ্রাপ্তের ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে।

ধারণা করা হচ্ছে, এই দুই ধারা যুক্ত হওয়ার কারণেই মামলাটি ছেড়ে দিল একক বেঞ্চ। আইন মেনেই যা স্থানান্তরিত হতে পারে ডিভিশন বেঞ্চে। সূত্রের খবর, বিচারপতি জয়মাল্য বাগচী এবং বিচারপতি অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে বিধায়কদের জামিন মামলার পরবর্তী শুনানি হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ওই টাকা উদ্ধারের ঘটনায় ঝাড়খণ্ডের তিন বিধায়কের অসম-যোগের তথ্য উঠে আসে। এমনকী তিন কংগ্রেস বিধায়কের গ্রেফতারির ঘটনায় নাম জড়িয়েছে অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার। কংগ্রেসের অভিযোগ, মহারাষ্ট্রের মতো ঝাড়খণ্ডেও টাকা দিয়ে সরকার ফেলার ছক কষছে বিজেপি। ধৃত বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল অসমের মুখ্যমন্ত্রীর। যদিও ঘোড়া কেনাবেচার অভিযোগ উড়িয়ে হিমন্তর পাল্টা দাবি, কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গেও তাঁর সম্পর্ক আছে। তবে সেটা ব্যক্তিগত, রাজনৈতিক নয়।

আরও পড়তে পারেন: 

‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’ ঘোষণায় বাধা চিনের, কে এই আব্দুল রউফ আজহার

ইডি-র আতসকাচে আরেকটি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ, ‘ফ্রিজ’ করা হল ৩৭০ কোটি টাকা

শুক্রবার থেকে দু’দিনের প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনে তৃণমূল, থাকবেন খোদ মমতা

পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নীতীশ কুমারকে সমর্থন? কী বললেন তেজস্বী

‘ভয়ংকর খেলা’র পর সিবিআই-এর জালে অনুব্রত, এ বার কি পার্থর মতোই হারাতে হবে পদ?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন