Howrah Municipal corporation
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

কলকাতা: হাওড়া পুরসভার ভোট পিছিয়ে গেল। মঙ্গলবার বিধানসভায় বিল নিয়ে এসে হাওড়া পুরসভায় প্রশাসক বসিয়ে আপাতত নির্বাচন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

গত আগস্ট মাসেই শেষ হয়েছে হাওড়া পুরসভার মেয়াদ। কিন্তু তার পরেও নির্বাচনের ব্যাপারে কোনো রকমের হেলদোল না দেখানোয় রাজ্য সরকারকে চিঠি দেয় রাজ্য নির্বাচন কমিশন। এই নিয়ে জটিলতার সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি ছিল, মেয়াগ শেষ হওয়া অন্যান্য পুরসভাগুলির মতো প্রশাসক বসানোর আইন ছিল না হাওড়া পুরসভার ক্ষেত্রে। এ দিন বিধানসভায় বিল নিয়ে রাজ্য সরকার সেই বিষয়টিকেই আশ্বস্ত হল।

অবশ্য, হাওড়া পুরসভায় প্রশাসক বসানোর সিদ্ধান্তকে মেনে নিতে পারেনি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তারা বাইরে বেরিয়ে এসে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। অন্য দিকে পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, হাওড়া পুরসভায় জোর কদমে উন্নয়নের কাজ চলছে। সেই কাজ অব্যাহত থাকবে। প্রশাসক বসানোয় সেই কাজ আরও ত্বরাণ্বিত হবে।

অন্য একটি সূত্রের মতে আগেই জানা গিয়েছিল, হাওড়া পুরসভায় ওয়ার্ড পুনর্বিন্যাস নিয়ে দলের অন্দরে ঐকমত্যের অভাব আছে। এ বিষয়ে জেলা দলের একটি অংশ রাজ্য নেতৃত্বকে জানিয়েছিলেন। তা জানতে পেরে দলের অন্য অংশ এ নিয়ে ‘সক্রিয়’ হয়ে ওঠে। রাজ্য নেতৃত্বের কাছে তদ্বির-তদারকি শুরু করে তারা। এই মতানৈক্যের জেরে পুরো বিষয়টি থমকে গিয়েছে।

বিরোধীদের দাবি, আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগে হাওড়া পুরসভার নির্বাচনে যেতে ভয় পাচ্ছে শাসক দল তৃণমূল। যে কারণে আইনে নিয়ে এসে প্রশাসক বসিয়ে ভোট পিছিয়ে দেওয়ার খেলায় মেতেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here