Dead Body

হাওড়া: রবিবার ভরদুপুরে চ্যাটার্জিহাটের একটি বহুতল থেকে উদ্ধার জোড়া দেহ। মৃত দম্পত্তি ওই বহুতলে ভাড়া থাকতেন। সকালে আঁকার ক্লাসে গিয়েছিল দুই মেয়ে। সে সময়েই ঘটে এই ঘটনা।

চ্যাটার্জিহাট এলাকার নন্দলাল মুখার্জি লেনের ওই বহুতলের নীচের তলে ভাড়া থাকতেন গৌতম এবং মৌসুমি নামে ওই দম্পতি। তাঁদের দুই মেয়ে যথাক্রমে নবম এবং তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে। এ দিন তারা আঁকার ক্লাসে গিয়েছিল। ফিরে এসে দেখে ভিতর থেকে দরজা বন্ধ রয়েছে ঘরের। অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পরেও কোনো সাড়া না পেয়ে প্রতিবেশীদের জানায় তারা। পুলিশের উপস্থিতিতে দরজা ভেঙে দেখা যায়, ঘরের ভিতর সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলছে গৌতমের দেহ। অন্য দিকে ঘরের মেঝেয় পড়েছিল মৌসুমির নিথর দেহ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি পানশালায় কাজ করতেন গৌতম। স্ত্রীর ফেসবুক আসক্তি নিয়ে বিরক্ত ছিলেন তিনি। তা নিয়ে অশান্তি লেগেই থাকত। সে কথা জানিয়েছে মৃত দম্পতির মেয়েরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দেহে আঘাতের চিহ্ন ছিল। চাদরমোড়া অবস্থায় পুলিশ যখন তাঁর দেহ বার করে নিয়ে যাচ্ছিল, তাতে চাপ চাপ রক্তের ছোপ দেখা যায়। পুলিশ যদিও এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। এটা আত্মহত্যার ঘটনা না কি খুনের, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়তে পারেন:

সলমন খানের খামারবাড়ি: কী এমন আছে সেখানে

সর্প দংশন সলমন খানকে, কেমন আছেন ‘ভাইজান’

এ কী কাণ্ড! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যপাল করে দেওয়ার পরামর্শ জগদীপ ধনখরের

পরের পর উইকেট পড়ছে বিজেপি-র, ‘নিজগুণে’ বিঁধলেন বাবুল সুপ্রিয়

নতুন করে আক্রান্ত রইল ৭ হাজারের নীচেই

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন