হাওড়া: প্রেমের টানে রাজ্য ছেড়ে পালিয়ে ছিলেন বালির দুই গৃহবধূ। মুম্বই থেকে ফেরার পরই আসানসোল স্টেশন থেকে ওই দুই জা ও তাঁদের প্রেমিককে বুধবার ভোররাতে আটক করে পুলিশ। তাঁদের সঙ্গে এক গৃহবধূর সাত বছরের ছেলেও রয়েছে।

গত কয়েক দিন ধরেই তোলপাড় চলছিল নিশ্চিন্দার আনন্দনগর থেকে ‘নিখোঁজ’ দুই গৃহবধূকে নিয়ে। বাড়িতে কাজ করতে আসা রাজমিস্ত্রির হাত ধরে ভিন রাজ্যে পাড়ি দিয়েছিলেন তাঁরা।

ঘটনায় প্রকাশ, মাসছয়েক আগে একতলা বাড়ি সংস্কারের কাজ করতে এসেছিলেন দুই রাজমিস্ত্রি। তাঁদের দু’জনকে প্রথম দেখাতেই ভালো লেগে যায় দুই গৃহবধূ রিয়া এবং অনন্যা কর্মকারের। দুই রাজমিস্ত্রি সুভাষ ও শেখরকে তাঁদের পছন্দ হয়ে যায়। শীতের পোশাক কিনতে যাওয়ার নাম করে গত ১৫ ডিসেম্বর বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন গৃহবধূ রিয়া ও অনন্যা। সঙ্গে ছিল রিয়ার সন্তান আয়ুশ। বাড়ি ফিরে না আসায় নিখোঁজ ডায়েরি দায়ের করে পরিবার।

ঘটনার তদন্তে নেমে মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে পুলিশ জানতে পারে, শ্রীরামপুরে রাজমিস্ত্রি এবং গৃহবধূরদের সাক্ষাৎ হয়। সেখান সেখান থেকে মুর্শিদাবাদ চলে যান তাঁরা। এর পর সেখান থেকে মুম্বই। এর পর কোথায় তাঁরা ছিলেন, তা খোঁজ করছিল পুলিশ।

গোপন সূত্রে তদন্তকারীরা জানতে পেরেছিলেন, টাকা-পয়সার অভাব হওয়ায় কর্মকার বাড়ির দুই গৃহবধূ তাঁদের প্রেমিকের সঙ্গে মুম্বই থেকে এ রাজ্যে ফিরে আসছিলেন। সেই মতোই আসানসোল স্টেশনে অপেক্ষা করছিল পুলিশ। বুধবার ভোরে দুই বধূ এবং তাঁদের প্রেমিকরা নামতেই তাঁদের আটক করা হয়। এর পর হাওড়ার নিশ্চিন্দা থানার হাতে তুলে দেওয়া হয় তাঁদের।

আরও পড়তে পারেন:

টেস্টের কারণে সামান্য বাড়ল সংক্রমণ, তবে সক্রিয় রোগী আরও কিছুটা কমল

হাড় কাঁপানো শীত হয়তো ফের জানুয়ারির শুরুতে

জ্বর ছিল না, গলা ব্যথাও না, তবুও আমায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হল: ওমিক্রনে সংক্রমিত দিল্লির বাসিন্দা

কবি সাহিত্যিক শরৎকুমার মুখোপাধ্যায় প্রয়াত

সজাগ থাকুন! ভিড়ে ঠাসা লোকাল ট্রেনে হাতে সূচ বিঁধিয়ে ছিনতাই

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন