extreme heat in bengal

ওয়েবডেস্ক: উত্তরবঙ্গে বর্ষা এ বার সত্যি সত্যি অনেকটাই পিছিয়ে গেল। কারণ মঙ্গলবার দক্ষিণবঙ্গের আরও কিছু অঞ্চলে বর্ষা প্রবেশ করলেও, উত্তরবঙ্গে এখনও বর্ষা পৌঁছোয়নি। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী এক সপ্তাহে বর্ষার আর বিশেষ অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে তার থেকেও বেশি আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের এখন যেটা ভাবিয়ে তুলছে সেটা হল সপ্তাহান্তে আবহাওয়ার অবিশ্বাস্য ভোলবদল।

বর্ষাকালে তাপপ্রবাহ। এ রকম ঘটনা সচরাচর ঘটে না। কিন্তু এ বার সেটাই ঘটতে চলেছে। আগামী শুক্রবার থেকে দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা মাত্রাছাড়া বৃদ্ধি পাবে, এমনই জানিয়েছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা। পাশাপাশি বিদেশি কিছু আবহাওয়া সংস্থাও এই ব্যাপারে সহমত যে আগামী শুক্রবার থেকে সামনের সপ্তাহের মাঝামাঝি পর্যন্ত ব্যাপক ভাবে বাড়তে পারে দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা।

ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানিয়েছেন, শুক্রবার থেকে কলকাতা এবং পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রির কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে। অন্য দিকে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলি অর্থাৎ বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূম, বর্ধমানে তাপমাত্রা ৪২-৪৩ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলতে পারে। অর্থাৎ এই মরশুমে এখনও পর্যন্ত যে গরমটা দক্ষিণবঙ্গ দেখেনি সেটাই এ বার পড়তে চলেছে, এমনই মনে করছে ওয়েদার আল্টিমা।

হঠাৎ করেন তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণ?

রবীন্দ্রবাবু জানিয়েছেন, এখন থেকে আগামী এক সপ্তাহের জন্য মৌসুমি বায়ু ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়বে। ঠিক সেই সঙ্গেই উত্তর এবং মধ্য ভারত থেকে ঢুকতে শুরু করবে গরম-শুকনো বাতাস। এর ফলে ক্রমশ বাড়বে তাপমাত্রা। তবে পশ্চিমাঞ্চলে যখন শুকনো গরম ছড়ি ঘোরাবে, তখন কলকাতার মানুষকে নাজেহাল করে ছাড়বে আর্দ্রতা, এমনই জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার থেকে সামনের সপ্তাহের অন্তত মঙ্গলবার পর্যন্ত আবহাওয়া এ রকম থাকবে বলে মনে করছেন তিনি। তবে তার পরে ফের স্বস্তি নিয়ে বঙ্গোপসাগরে আরও একটি নিম্নচপ হাজির হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আপাতত আগামী ৪৮ ঘণ্টায় কলকাতা এবং দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি চলবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here