কলকাতা: অবশেষে মুখ তুলে চেয়েছে বর্ষা। গত দু’তিন দিনে প্রবল বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায়। আর এই বৃষ্টিতে সব থেকে বেশি লাভবান হয়েছে হুগলি জেলা। সেখানে এক ধাক্কায় প্রায় পঁচিশ শতাংশ কমে গিয়েছে ঘাটতি। এই মুহূর্তে দক্ষিণবঙ্গের যে জেলায় বর্ষা স্বাভাবিকের কোঠায় এসে গিয়েছে, সেটা হুগলি।

গত বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় প্রবল বর্ষণ হয়। তবে সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে গ্রামীণ হুগলিতে। হরিপাল থেকে আরামবাগ পর্যন্ত বৃষ্টিপাত সব থেকে বেশি ছিল। এর মধ্যে সব থেকে বেশি বৃষ্টি রেকর্ড করে হরিণখোলা (২২০ মিলিমিটার)। আরামবাগ-সহ একাধিক জায়গায় গড়ে একশো মিলিমিটার বৃষ্টি হয়।

এর প্রভাব পড়েছে রাজ্যের বৃষ্টির পরিসংখ্যানে। হুগলিতে বর্তমানে বৃষ্টির ঘাটতি নেমে এসেছে মাত্র ১৩ শতাংশে। অর্থাৎ মরশুমে এখনও পর্যন্ত যা বৃষ্টি হওয়ার কথা ছিল, তার ৮৭ শতাংশ বৃষ্টিই হুগলিতে হয়ে গিয়েছে। অথচ মাত্র এক সপ্তাহ আগেই এই জেলায় বৃষ্টির ঘাটতি ৩৮ শতাংশ ছিল।

শুধু হুগলিই নয়, গত দু’দিনের বৃষ্টিতে লাভবান হয়েছে দুই বর্ধমান, বাঁকুড়া এবং পুরুলিয়াও। চাষের মাঠে জল দাঁড়িয়ে যাওয়ায় কৃষকরা স্বস্তিতে। এখানেই অবশ্য শেষ হচ্ছে না। আগামী দিনে আরও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। শনিবার থেকে সোমবার পর্যন্ত ফের কয়েক দফায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গে।

আরও পড়তে পারেন:

কাশ্মীরে ফের জঙ্গিদের নিশানায় অভিবাসী শ্রমিক, গুলিতে ঝাঁঝরা বিহারের বাসিন্দা

রজৌরির সেনা চৌকিতে জঙ্গি হামলা, নিহত তিন জওয়ান, পাল্টা গুলিতে খতম তিন জঙ্গিও

পশ্চিমবঙ্গের শস্যভাণ্ডারে মোক্ষম সময় ভারী বৃষ্টি, অবশেষে স্বস্তিতে কৃষককুল

একাধিক জায়গায় সেঞ্চুরি, অবশেষে প্রবল বর্ষণ পেল দক্ষিণবঙ্গে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন