Connect with us

পঞ্চায়েত ভোট

পূর্ব বর্ধমানে তৃণমূল জয়ী ১৩টি জেলা পরিষদে, ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছতে দরকার আর ১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: রাজ্য ব্যাপী ডামাডোলের মধ্যেই বর্ধমানেও অশান্ত পরিবেশে আপাতত শেষ হয়েছে ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়নপত্র পেশ। তার পরেই প্রশাসনিক সুত্রে প্রকাশ করা হয়েছে পূর্ণাঙ্গ পরিসংখ্যান। পূর্ব বর্ধমান জেলার মোট জেলা পরিষদ আসনের সংখ্যা ৫৮ টি। যার মধ্যে ১৩টি আসনেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হতে চলেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও এখনও মনোনয়ন প্রত্যাহার প্রক্রিয়া বাকি আছে। জেলা পরিষদ আসনগুলির মধ্যে বিরোধীরা মনোনয়ন দিতে পেরেছে ৪৫টি আসনে। যার মধ্যে বিজেপি ৪২টিতে , সিপিএম ১৮টিতে ও কংগ্রেস ৯টি আসনে। এ ছাড়াও কয়েকটি আসনে বিএসপি ও নির্দল প্রার্থীরা দাঁড়িয়েছেন। শুধু মাত্র সেই আসনগুলিতেই  নির্বাচন হবে। বাকি ১৩টিতে তৃণমূল কংগ্রেস বিনা নির্বাচনেই জয়ী হতে চলেছে।  তবে জেলা পরিষদ দখলের ম্যাজিক ফিগার ৩০ হওয়ায় আর ১৭টিতে জয়ী হতে হবে তৃণমূলকে ।

মনোনয়ন পর্বের শুরু থেকেই রাজ্য-সহ পূর্ব বর্ধমান জেলার বিরোধীরা শাসক দলের বিরুদ্ধে মনোনয়নে বাধা, মারধরের ঘটনা তুলে ধরে সন্ত্রাসের অভিযোগে নির্বাচন কমিশনে সরব হয়েছে। তাদের দাবি, মনোনয়ন দিতে দিলে সমস্ত আসনেই প্রার্থী দিত তারা। এই ১৩টিপ মধ্যে  আউসগ্রাম দুই থেকে ১টি  আসন , মেমারি এক ও দুই থেকে ৩ টি, রায়না এক ও দুই থেকে ২টি, খণ্ডঘোষ ১টি, কাটোয়ায় ১টি । কেতুগ্রাম এক ও দুই থেকে ৩ টি মঙ্গলকোট থেকে ২ আসনে বিরোধীরা মনোনয়ন তুলতে পারেনি। বিগত জেলা পরিষদের নির্বাচনে ৫৮টির মধ্যে ৯টি আসন বিরোধীদের দখলে ছিল।

মোট  পঞ্চায়েত সমিতির ৬১৮টি আসনের মধ্যে ৩০ টি আসনে কোনো প্রার্থী দিতে পারেনি সিপিএম-বিজেপি-কংগ্রেস সহ বিরোধীরা। সেখানেও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতছে তৃণমূল। আবার ৩২৩৪টি  গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে  ১৬১১টিতে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারেনি ।

বিরোধীদের মধ্যে সিপিএমের  জেলা সম্পাদক অচিন্ত্য মল্লিক বলেন, ‘ নির্বাচনে আমাদের প্রার্থীদের মনোনয়ন তুলতে দেওয়া হয়নি। বিডিও-এসডিও অফিসে ঢুকতে গেলে মারধর করা হয়েছে। আমাদের প্রচার করার কোনো গনতান্ত্রিক পরিস্থিতি নেই ।’

বিজেপিও কার্যত একই দাবি করেছে। বিজেপির জেলা সভাপতি সন্দীপ নন্দী বলেন, ’গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ভোট হলে আমরা খুব ভালো ফল করতাম। ইতি মধ্যেই আমরা প্রচার শুরু করেছি বাড়ি বাড়ি গিয়ে। এই সকারের দুর্নীতিগুলোকে সামনে রাখব। গুরুত্ব দিচ্ছি সোশ্যাল মিডিয়াকেও।’’

তবে জেলা পরিদষদের সভাধিপতি দেবু টুডু দাবি করেন, ‘আমরা গ্রামে গ্রামে পঞ্চায়েতি রাজ প্রতিষ্ঠা করেছি। প্রতিটা গ্রামে রাস্তাঘাট, ১০০ দিনের কাজ খুব ভালো হয়েছে, মানুষ সরকারি প্রকল্পে বাড়ি পেয়েছে। তাই মানুষ আমাদের সঙ্গে আছেন। আমরা এইগুলোই গ্রামে গ্রামে প্রচারে তুলে ধরছি। আমরা সমস্ত আসনেই জয় লাভ করব। তবে বিরোধীরা  মনোনয়ন তোলার প্রার্থী পায়নি বলে আমাদের উপর অভিযোগ করছে।”

পঞ্চায়েত ভোট

সুপ্রিম কোর্টে শুনানির আগে ই-মনোনয়ন নিয়ে নতুন সমস্যা জেলায় জেলায়

কলকাতা: সুপ্রিম কোর্টের রায়ে রাজ্যের ৩৪ শতাংশ আসনে এখনও পঞ্চায়েত নির্বাচন বাকি। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে যাওয়া  ওই সমস্ত আসনের ভাগ্য নির্ধারণ হবে আগামী ৩ জুলাইয়ের শুনানিতে। কিন্তু তার আগেই নতুন করে অভিযোগ উঠছে শাসক দলের বিরুদ্ধে।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তৃণমূলের জিতে যাওয়া ওই ৩৪ শতাংশ আসনে ই-মনোনয়নকে বৈধ করেছে শীর্ষ আদালত। অর্থাৎ, সশরীরে যাঁরা পঞ্চায়েত ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মনোনয়ন জমা করতে পারেননি, তাঁরা যদি নির্বাচন কমিশন নির্ধারিত সময়ে ই-মেলের মাধ্যমে মনোনয়ন পত্র জমা করে থাকেন, তা হলে আবেদনপত্র সঠিক হলে তিনিও প্রার্থী হিসাবে স্বীকৃতি বলে আগেই নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

এখনও পর্যন্ত যা খবর, তাতে দেখা গিয়েছে শুধু মাত্র বীরভূমের ৪২টি জেলাপরিষদ আসনের মধ্যে ২০টিতে ই-মনোনয়নের জেরে ভোট হতে পারে। স্বাভাবিক ভাবেই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জেলআ পরিষদ দখল করা তৃণমূলকে ফের ভোটে যেতে হবে। যদিও বাকি ২২টি আসনে যদি ভোট না হয়, তবে সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে তারাই জয়ী। কিন্তু ওই সমস্ত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আসনগুলির জন্য সুপ্রিম কোর্ট নতুন কোনো নির্দেশ দেয় কি না, তা নিয়েও চাপা টেনশন রয়েছে। যার বহির্প্রকাশ ঘটছে জেলায় জেলায়।

আরও পড়ুন: হাইকোর্টের রায়ে ছিঁড়ে গেল ‘মশারি’, বীরভূমে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন ১৮ সিপিএম প্রার্থী

আপাতত খবর পাওয়া গিয়েছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বেশ কয়েকটি অঞ্চলে ই-মনোনয়ন জমা দেওয়া বিরোধী দলের প্রার্থীদের উপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেকের লোকসভা কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারও। এলাকার বজবজ-২ ব্লকে পঞ্চায়েতে ই-মনোনয়ন জমা পড়েছে ১৭টি, পঞ্চায়েত সমিতিতে ৩টি এবং জেলা পরিষদে ১টি। সিপিএমের দাবি, ওই এলাকায় ‘উন্নয়ন বাহিনী’ এ-মনোনয়ন দাখিলকারীদের উপর চাপ সৃষ্টি করছে। উল্লেখ্য, গত ৯ মে এই এলাকায় ই-মনোনয়ন জমা দেওয়া পাঁচ প্রার্থীকে অপহরণের অভিযোগও উঠেছিল।

সিপিএমের দাবি, কারা ই-মনোনয়ন জমা দিয়েছে, সেই তালিকা হস্তগত করেছে তৃণমূল। কারণ হাইকোর্টে সংশ্লিষ্ট মামলা চলাকালীন সিপিএম সেই তালিকা আদালতে পেশ করেছিল। সেই তালিকা থেকেই জেলায় জেলায় ই-মনোনয়ন জমা দেওয়া বিরোধী প্রার্থীদের খুঁজে বের করতে সুবিধা হচ্ছে ‘উন্নয়ন বাহিনী’র।

যদিও বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেছেন, “ওই মনোনয়নগুলি যদি বৈধ হয়, তা হলে তাঁদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ দিতে হবে”।

Continue Reading

পঞ্চায়েত ভোট

‘গুরুঠাকুর’-এর কাছেই হারতে হল বলরামপুরের বিদায়ী তৃণমূল সভাধিপতিকে

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: রাজ্যের পঞ্চায়েত ভোটে এ বছর পুরুলিয়া বিজেপির উত্থান আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে রাজ্য জুড়ে। ফলাফল ঘোষণার পর তিন পরেও চলছে গেরুয়া আবির উড়িয়ে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের বিজয় উদযাপন। কিন্তু জেলার রাশ রয়েছে তৃণমূলের হাতেই। তবে বলরামপুরের তৃণমূল সভাধিপতির হারের কারণ খুঁজতে চলছে ময়না তদন্ত। কারণ রাজনীতিতে আনকোরা এক প্রতিদ্বন্দ্বীর কাছেই হারতে হয়েছে তৃণমূলকে।

এ বার ভোটে হেরেছেন জেলার শীর্ষস্থানীয় তৃণমূল নেতা সৃষ্টিধর মাহাতো। তিনি জেলা পরিষদ আসনে পরাজিত হয়েছেন ৯ হাজার ১৪৫ ভোটে। জয়ী হন বিজেপির গোপীনাথ গোস্বামী। এ বছর প্রথমবার নির্বাচনী রাজনীতিতে অংশ নিয়েছিলেন গোপীনাথবাবু। তিনি রাজ্য সরকারের অবসরপ্রাপ্ত তথ্য ও সংস্কৃতি।

তবে রাজনীতির পরিবর্তে আবসর জীবনে কীর্তনীয়া শিল্পী হিসেবেই তিনি পরিচিত এলাকার মানুষের কাছে। স্থানীয় মানুষ কেউ তাঁকে ডাকেন গুরুঠাকুর, কেউ কেউ গোঁসাইসাহেব বলে । স্থানীয় সূত্রে খবর, সাম্প্রতিক অতীতে সরাসরি রাজনীতি না করলেও শুধুমাত্র পুজো-অর্চনা ছাড়াও মানুষের সুখ-দুঃখেও তিনি পাশে দাঁড়ান।

জেলা প্রশাসন সূত্রে, ২০১৭ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে অবসর নেন গোপীনাথবাবু। গোপীনাথবাবু জানান, তিনি কোনোদিনও রাজনীতিতে আসবেন বলে ভাবেননি, কিন্তু উন্নয়নের নামে ঘটে যাওয়া কিছু অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তাঁকে এলাকার মানুষ উৎসাহিত করায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নেন।

অন্যদিকে তৃণমূলের বিদায়ী সভাধিপতি সৃষ্টিধর মাহাতো জানান, এলাকায় তিনি অনেক উন্নয়ন করেছেন, মানুষ হয়তো আরও বেশি প্রত্যাশা করে, তাই ওনাকে নির্বাচন করেছেন ।

Continue Reading

পঞ্চায়েত ভোট

ব্যালটের বস্তা উদ্ধার হওয়া সেই ব্লকে পুনর্নির্বাচন চাইছে সিপিএম

পুরুলিয়া: গত ১৪ মে হয়েছে রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন, ১৬ মে নির্দিষ্ট কয়েকটি বুথে পুনর্নির্বাচনের পর ভোটগণনা হওয়ার পরেও রবিবার ফুলবাড়ির দু’টি বুথে চলছে ভোটগ্রহণ। তা হলে সেই ব্যালট নয়ছয়ের একই অভিযোগে কেন পুনর্নির্বাচন হবে না? এমন দাবিতেই পুরুলিয়ার পুঞ্চা ব্লকের পুনরায় ভোটগ্রহণের দাবি তুলল সিপিএম।

গত শনিবার অভিযোগ ওঠে, স্থানীয় একটি স্কুলের পাশে আবর্জনার স্তূপ থেকে উদ্ধার হয় কয়েক বস্তা ব্যালট। সেগুলি পরীক্ষা করে দেখা যায় জনগণের মত সম্বলিত ওই ব্যালটের অধিকাংশ ভোটই পেয়েছেন সিপিএম প্রার্থী বিপত্তারণ শেখরবাবু। কিন্তু ভোটের ফলাফলে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে প্রাপ্ত ওই ব্যালটের মধ্যে বিজেপি এবং নির্দলের সমর্থন জানানো ভোটারের রায়ও ছিল। কিন্তু পুরুলিয়া জেলা নেতৃত্বের ধারণা, এ ভাবেই বিরোধীদের প্রাপ্ত ভোট সম্বলিত এমন কয়েক হাজার ব্যালট নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ব্লক প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, প্রশাসনের কর্মীরা এ ভাবেই ব্যালট পুড়িয়ে দিয়েছেন। শাসক দলের সঙ্গে প্রশাসনের এ ধরনের পক্ষপাতিত্ব মূলক আচরণের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও ভাবছে সিপিএম। পাশাপাশি রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে তথ্য প্রমাণ-সহ অভিযোগ জানিয়ে পুনর্নির্বাচনের দাবি তোলার তোড়জোড়ও চলছে।

আরও পড়ুন: কয়েক বস্তা ব্যালট উদ্ধার হল, দেখে অবাক বিডিও

যদিও জেলা প্রশাসনের তরফে বিষয়টিকে গুরুত্বহীন বলে দাবি করা হয়েছে। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, এ ধরনের কোনো নিয়ম বহির্ভূত ঘটনার কথা তাদের জানা নেই। এমনকী খোদ জেলা শাসক এ বিষয়ে বলেছেন, উদ্ধার হওয়া ব্যালটে ভোটকর্মীদের ভোট নেওয়া হয়েছিল।

জেলা শাসকের এমন বক্তব্যে অসঙ্গতি স্পষ্ট বলে মনে করছে সিপিএম। ভোট কর্মীদের দেওয়া ভোট হোক বা সাধারণ মানুষের ভোট, তা স্ট্রংরুম থেকে কী ভাবে বাইরে এল অথবা সেগুলিকে তড়িঘড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার কারণ কী, সেই প্রশ্নেরই উত্তর চায় সিপিএম।

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য10 mins ago

আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গে মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির আশঙ্কা

BMS
দেশ36 mins ago

বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে সপ্তাহব্যাপী প্রতিবাদে নামছে আরএসএসের শ্রমিক সংগঠন

Currency
রাজ্য1 hour ago

ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের আর্জি খারিজ স্যাটে

Hemant Soren
দেশ2 hours ago

মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত! কোয়রান্টিনে গেলেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন

দেশ3 hours ago

‘গান্ধী’ পরিবারের তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে উচ্চস্তরের কমিটি গড়ল কেন্দ্র

রাজ্য5 hours ago

বিকল্প শিক্ষাপদ্ধতি: তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে লকডাউন পাঠশালা

দেশ7 hours ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে, কিছুটা বাড়ল সুস্থতা

কলকাতা7 hours ago

করোনা প্রতিরোধে মাস্ক-স্যানিটাইজার বিতরণ ‘উই আর দ্য কমন পিপল’-এর

দেশ8 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

currency
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

পিপিএফের ৯টি নিয়ম, যা জেনে রাখা ভালো

দেশ3 days ago

২০২১-এর আগে নয় করোনা ভ্যাকসিন? প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেও সময়সীমা মুছে দিল বিজ্ঞানমন্ত্রক!

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় এখন ১৮টি কনটেনমেন্ট জোন, ১৮৭২টি আইসোলেশন ইউনিট, ফারাকটা কোথায়?

রাজ্য2 days ago

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

বিনোদন3 days ago

করোনা আবহে কী ভাবে হল ‘বিবাহ বার্ষিকী’র শুটিং? দেখে নিন অভিনেত্রী দর্শনা বণিকের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার

দেশ3 days ago

গাজিয়াবাদের কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ, মৃত ৭

ক্রিকেট2 days ago

ওপেনার সচিন তেন্ডুলকরের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

কেনাকাটা

কেনাকাটা23 hours ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা2 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা3 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা1 week ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে