vidhan sabha west bengal

ওয়েবডেস্ক: কলকাতা পুরসভার মেয়রপদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত বৃহস্পতিবার ফিরহাদ হাকিমকে মনোনীত করার পর থেকেই বিরোধিতার সুর চড়াচ্ছে সিপিএম। ওই দিনই বিধানসভায় পুর আইন সংশোধনের বিল পাশ করেছে রাজ্য সরকার। তবুও নির্দিষ্ট কয়েকটি কারণেই এই পরিপূরক দুই ঘটনার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন প্রাক্তন পুরমন্ত্রী তথা শিলিগুড়ি পুরসভার মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। শুক্রবার শিলিগুড়ি পুরসভায় একটি সাংবাদিক বৈঠকে তিনি দাবি করেন, ফিরহাদ হাকিমকে বেআইনি ভাবে কলকাতার মেয়রপদে বসিয়েছেন মমতা।

এ ব্যাপারে অশোকবাবু জানান তাঁরা বিষয়টিকে নিয়ে আদালতে যাবেন। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল এবং বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে দরবার করবেন। তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গ পুর আইন তো বটেই পাশাপাশি কলকাতা পুরসভা আইন এবং সংবিধানের কোথাও এ ধরনের সিদ্ধান্তগ্রহণের অনুমতি দেওয়া নেই। উল্টে বলা হয়েছে, কোনো কারণে যদি মেয়রকে সরে দাঁড়াতে হয় বা অপসারণ করতে হয় সে ক্ষেত্রে ডেপুটি মেয়র ওই পদের দায়িত্ব সামলাতে পারেন।

একই সঙ্গে পুর আইন সংশোধনেও একাধিক গাফিলতি দেখছেন অশোকবাবু। তিনি বলেন, বিধানসভায় কোনো বিল পাশ করে আইন সংশোধন করতে হলে তার ৭২ ঘণ্টা আগে সেই বিলের খসড়া কপি বিধায়কদের হাতে তুলে দিতে হয়। কিন্তু তড়িঘড়ি ফিরহাদ হাকিমকে মেয়রপদে বসাতে গিয়ে সে সব নিয়মেরও তোয়াক্কা করেনন মমতা। তাঁর দাবি, মাত্র ৩০ মিনিট আগে খসড়া বিল বিধায়কদের দিয়েই সেটা পাশ করিয়ে নেওয়া সম্পূর্ণ ভাবে আইনবিরুদ্ধ।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর বৃহস্পতিবার কলকাতার মেয়রপদ থেকে ইস্তফা দেন শোভনবাবু। ওই দিনই আলিপুরে একটা বৈঠকে আগামী মেয়র হিসাবে মমতা মনোনীত করেন ফিরহাদকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here