Currency
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) বাড়ানোর সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তেই স্পষ্ট হচ্ছিল ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার দিকেই এগোচ্ছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি রাজ্যে আসা পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সদস্যদের কাছে জমা দেওয়া দাবিপত্রে সেই ইঙ্গিতই আপাত স্পষ্ট হল বলে ধারণা করছেন অর্থনীতিবিদরা।

রাজ্য সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী জানুয়ারি থেকে রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা ১২৫ শতাংশ ডিএ পাবেন। বেতনের ১২৫ শতাংশ ডিএ না হলে নতুন বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করা যায় না। অথচ ষষ্ঠ বেতন কমিশনের কাজ প্রায় শেষের পথে। পুজোর আগেই অভিরূপ সরকারের নেতৃত্বাধীন কমিশন সুপারিশ জমা দিয়ে দেবে বলে খবর। এই অবস্থায় রাজ্য সরকারের হিসেব করে ঠিক ২৫ শতাংশ ডিএ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আসলে বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করারই প্রথম ধাপ বলে মনে করা হচ্ছে। একটি মহল থেকে শোনা যাচ্ছে, আগামী নভেম্বর মাসে কমিশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই তার মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়েও কেন্দ্রীয় কমিশনের সঙ্গে আলোচনা করেছে রাজ্য সরকার।

জানা গিয়েছে, পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সদস্যদের সামনে রাজ্য যে দাবিপত্র রেখেছে সেখানে ষষ্ঠ বেতন কমিশন কার্যকর করার সমূহ সম্ভাবনা স্পষ্ট হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, ওই দাবিপত্রের ৮০-৮১ পাতার ৩.৪(৬) অনুচ্ছেদে আগামী ২০১৯-২০ অর্থ বছর থেকেই  বেতন ও পেনশন মিলিয়ে ১৬.৬ শতাংশ হারে বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। যা রাজ্যের সাম্প্রতিক ডিএ বৃদ্ধির হারের থেকে অনেকটাই কম।

আরও পড়ুন: ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের রায়ে হাইকোর্টের হস্তক্ষেপ রোধে সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছে রাজ্য

কিন্তু ডিএ বৃদ্ধির বিষয়টি রাজ্য সরকার নিজের হাতে তুলে নিলেও বেতন বৃদ্ধি সম্পূর্ণ ভাবে নির্ভর করছে রাজ্যের নিযুক্ত ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশের উপর। সেখান থেকে অবশ্য এখনও কোনো ধরনের মন্তব্য করা হয়নি। তবুও পঞ্চদশ অর্থকমিশনের কাছে জমা দেওয়া রাজ্যের বিস্তৃত দাবিপত্রটির কয়েকটি অংশ থেকে সেই সম্ভাবনা প্রকট বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here