যাদবপুরকাণ্ডে মিছিল, পাল্টা মিছিলে সরগরম উত্তর থেকে দক্ষিণ

ওয়েবডেস্ক: এক দিকে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্থা অন্য দিকে এসএফআইয়ে ইউনিয়ন রুমে তাণ্ডব চালানোর প্রতিবাদে মিছিল, পাল্টা মিছিলে সরগরম শুক্রবারের কলকাতা। এ দিন বিজেপির রাজ্য দফতর থেকে মিছিল বের করে এবিভিপি। অন্য দিকে ঢাকুরিয়া থেকে মিছিল বের করে এসএফআই।

গত বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে এবিভিপির নবীনবরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গেলে হেনস্থার শিকার হতে হয় বাবুল সুপ্রিয়কে। বাবুল বলেন, “রাজ্যপাল না থাকলে বেঁচে ফিরতাম না“। এ দিন এবিভিপির মিছিলে অংশ নেন বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, অগ্নিমিত্রা পাল এবং বাবুল সুপ্রিয়-সহ অনেকেই। রাজ্য দফতর থেকে বেরিয়ে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ ধরে এগিয়ে মিছিল ধর্মতলায় গিয়ে থামে।

অন্য দিকে গত বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে এসএফআইয়ের ইউনিয়ন রুমে ভাঙচুর চালান এবিভিপি সমর্থকেরা। গেরুয়া তাণ্ডবের প্রতিবাদে এ দিন ঢাকুরিয়া থেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত মিছিল করে এসএফআই।

বাবুলের উপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ শেষ দেখে ছাড়ার হুঁশিয়ারি দেন এ দিন। অন্য দিকে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু “আজ থেকে পাল্টা মারে”র হুঁশিয়ারি দেন।

বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, তৃণমূল-সিপিএম এবং নকশালরা মিলিত ভাবে ষড়যন্ত্র মাফিক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর উপর হামলা চালিয়েছে। পুলিশকে সরিয়ে রেখে চরম হেনস্থা করা হয়েছে বাবুল সুপ্রিয়কে।

অন্য দিকে এসএফআই নেতৃত্ব দাবি করেন, “আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলাম। বাবুল সুপ্রিয়র প্ররোচনায় বিশ্ববিদ্যালয় চত্ত্বরে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর তাণ্ডব চালায় এবিভিপি। সেই তাণ্ডবের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেই এই মিছিলের আয়োজন”।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.