জলপাইগুড়ি: নাগরিকপঞ্জির আতঙ্কে রাজ্যে ফের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল। এ বার জলপাইগুড়িতে আত্মহত্যা করেছেন এক ভাওয়াইয়া শিল্পী।  

পরিবারের অভিযোগ, জমি সংক্রান্ত বেশ কিছু কাগজপত্র না থাকায় আতঙ্কে ভুগছিলেন মহম্মদ শাহাবুদ্দিন নামক বছর ৬৯-এর ওই প্রৌঢ় শিল্পী। সেই অবসাদ থেকে ওই প্রৌঢ় আত্মহত্যা করেছেন বলে সন্দেহ করছে পুলিশ।

জলপাইগুড়ির বাহাদুর অঞ্চলের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি ভাওয়াইয়া গানের শিল্পী হিসাবেই পরিচিত ছিলেন। এমনকি শিল্পী হিসাবে সরকারি ভাতাও পেতেন তিনি। মাস খানেক ধরেই নিজের একটি  জমি সংক্রান্ত সমস্যা চলছিল তাঁর।

পরিবারের দাবি, জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, নথি না থাকায় নাগরিকপঞ্জির আতঙ্ক চেপে বসেছিল প্রবীণের মনে। সেই অবসাদ থেকেই আত্মহত্যা করেছেন তিনি। এমনই অভিযোগ পরিবারের।

আরও পড়ুন মেঘ-কুয়াশার যুগলবন্দীতে আবার বাড়ল পারদ

জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতিরও দাবি, নাগরিকপঞ্জির আতঙ্কের জেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন মহম্মদ শাহাবুদ্দিন। মানসিক অবসাদ থেকেই যে ওই শিল্পী আত্মহত্যা করেছেন, প্রাথমিক তদন্তের পর, তা নিয়ে কার্যত নিশ্চিত পুলিশও।

নাগরিকপঞ্জি নিয়ে রাজ্যে মানুষকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার বার আশ্বস্ত করলেও, মানুষের মধ্যে আতঙ্ক যাচ্ছে না। এই ইস্যুতেই গত তিন মাসে শুধুমাত্র জলপাইগুড়িতেই পাঁচ জন আত্মহত্যা করেছেন।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন