ধূপগুড়ি: দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক। কিন্তু শিক্ষকের চাকরি পাওয়ার পরই বেঁকে বসে বিয়ে করতে নারাজ যুবক। অগত্যা প্রেমিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করলেন যুবতী।

গত বৃহস্পতিবার ধূপগুড়ি ব্লকের কালিরহাটের বাসিন্দা শালবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শুভঙ্কর রায়ের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে ধরনায় বসেন কাঠুলিয়া এলাকার সঙ্গীতা রায়। এই ঘটনা কথা জানাজানি হতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। এর পরই জানা যায়, শিক্ষকের পরিবারের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয় ধূপগুড়ি থানায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিটিয়ে নেওয়ার জন্য যুবতীকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এর পর শুক্রবার জানা যায়, পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছেন সঙ্গীতা।

থানায় লিখিত অভিযোগে তিনি জানিয়েছেন, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিক বার সহবাস করেছেন শুভঙ্কর। তার পরেও বিয়ে করতে অস্বীকার। তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে।

ঘটনায় প্রকাশ, শুভঙ্কর-সঙ্গীতার সম্পর্ক প্রায় ছ’বছরের। এ কথা জানতেন দুই পরিবারেরই লোকজন। কিন্তু শুভঙ্কর আচমকা বিয়ে করতে বেঁকে বসায় ধরনায় বসেন সঙ্গীতা। তাঁর দাবি, “এত দিন ধরে সে আমাকে বিয়ে করার কথা বলে এসেছে। ১ মে আচমকা সে বলে আমাকে বিয়ে করবে না। আমার বাড়ি থেকেও বিয়ের প্রস্তাব গিয়েছে তার বাড়িতে। তার বাড়ির লোকেরাও বিয়েতে রাজি কিন্তু সময় চান। এ দিকে এক জনের মাধ্যমে সে আমাকে জানিয়ে দেয়, বিয়ে করবে না”।

সঙ্গীতার সঙ্গে ছেলের সম্পর্কের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন শুভঙ্করের বাবাও। তিনি জানিয়েছেন, “ওদের বাড়ি থেকে এর আগে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আসা হয়েছিল। এর আগে ছেলের বিয়েতে মতও ছিল। কিন্তু জানি না এখন কী হয়েছে। আমরা বিয়ে দিতে রাজি”।

উলটো দিকে, এ বিষয়ে শিক্ষক শুভঙ্কর রায় এখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি।

আরও পড়তে পারেন: 

কাশীপুর কাণ্ডের জল গড়াল হাইকোর্টে, ময়নাতদন্ত বন্ধ রাখার আরজি জানিয়ে জনস্বার্থ মামলা

বিজেপি কর্মীর রহস্যমৃত্যু ঘিরে ধুন্ধুমার কাশীপুরে, হাতাহাতি বিজেপি-তৃণমূলের

কাশীপুরে বিজেপি যুব নেতার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, বাড়িতে যাবেন অমিত শাহ

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন