বেলপাহাড়ি থেকে ফেরার পথে রাস্তার ধারের চায়ের দোকানে ঢুকে পড়লেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে দোকানদারের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি, চপ, তেলেভাজা-সহযোগে জনসংযোগও সারলেন তিনি।

মঙ্গলবার ঝাড়গ্রামে সভা সেরে বেলপাহাড়িতে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে গিয়ে স্থানীয় আদিবাসী বাসিন্দাদের ঘরে ঢুকে পড়েন। বাড়ি, পানীয় জলের সংযোগ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানান স্থানীয়রা। সেখান থেকে ফেরার পথেই বিনপুরের এই চপের দোকানে ঢুকে পড়েন তিনি। আচমকা মমতার আগমনে হতচকিত হয়ে পড়েন ওই চায়ের দোকানের লোকজন।

আন্ধারিয়া গ্রামের কাছে রাস্তার ধারে বুদ্ধদেব মহন্তের চা, চপের দোকান দেখে গাড়ি থামিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। সে সময় চপ ভাজছিলেন বিক্রেতা। ততক্ষণে তাঁর দোকানে ভিড়ও জমে গিয়েছে। দোকানে ঢুকেই মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেবের উদ্দেশে বলেন, “সরো দেখি, তোমাকে সাহায্য করি”।

এর পরেই উনুনের সামনে গিয়ে ঝাঝরি হাতা নিয়ে চপ ভাজতে শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী। এর পর ভেজে রাখা চপ কাগজে করে দাঁড়িয়ে থাকাদের দিতে শুরু করেন মমতা। সাংবাদিক, নিরাপত্তা রক্ষী, সরকারি আধিকারিক এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের হাতেও তুলে দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে জেলা সফরে গিয়ে দিঘার চায়ের দোকানে ঢুকে নিজেই চা বানাতে শুরু করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আবার দার্জিলিংয়ে গিয়ে স্থানীয় মহিলাদের সঙ্গে নিয়েই মোমো বানানোতেও হাত লাগিয়েছিলেন। এ বার একেবারে নতুন ভূমিকায় দেখা গেল তাঁকে।

আরও পড়ুন: ডেঙ্গি দাপট অব্যাহত, নবান্নে জরুরি বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন