রাজ্য সরকারের উদ্যোগে শুরু হল টুসুগীত প্রশিক্ষণ শিবির

0

সমীর মাহাত, ঝাড়গ্রাম: পশ্চিমবঙ্গ কুড়মি ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কালচার বোর্ডের উদ্যোগে ঝাড়গ্রাম জেলায় শুরু হল টুসুগীত প্রশিক্ষণ শিবির। শুক্রবার শিবিরের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ঝাড়গ্রামের লোধাশুলি পথসাথী অতিথিশালায় উপস্থিত ছিলেন জেলা শাসক আয়েশা রানি এ, বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান রথীন্দ্রনাথ মাহাত-সহ অন্যান্য বিশিষ্টরা।

জেলার সমস্ত ব্লকের কুড়মি মহিলা, যাঁদের বয়স ১৮ থেকে ৩৫, এমন ৫০ জন শিক্ষার্থীকে ৭ দিন প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রশিক্ষণ শেষে তাঁরা শংসাপত্র পাবেন। উল্লেখ্য, টুসু পরব জঙ্গল মহলের অন্যতম শ্রেষ্ঠ উৎসব। নিয়ম ও রীতির সঙ্গে কুড়মি জনজাতি ও অপরাপর সহযোগী জাতিসত্তা এই সংস্কৃতির ধারক বাহক। প্রাচীন কাল থেকেই এঁরা টুসুগীত পরিবেশন করেন এই উৎসবে।

ক্রমশ ভিন্ন সংস্কৃতির আগ্রাসনে টুসুগীতের বিকৃতি ঘটছে বলে অভিযোগ ওঠে। আদি জনজাতি কুড়মিরা তাদের ভাষা সংস্কৃতি, গান বাজনা, খেলাধুলা, শিক্ষা, সবকিছুর যাতে ঐতিহ্য ধরে রেখে তার বিকাশ ও প্রসারিত করতে পারে, সে কারণে ২০১৭ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি কলকাতা গেজেট পাশের মাধ্যমে রাজ্য সরকার “কুড়মি ডেভলপমেন্ট এন্ড কালচার বোর্ড “গঠন করে।

বোর্ড এই জেলায় সবেমাত্র উন্নয়নের কাজ শুরু করেছে। এর আগে বোর্ডের উদ্যোগে। অহিরাগীত বা বাঁদনা নাচ-গানের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এ দিন অনুষ্ঠানে এসে জেলা শাসক আয়েশা রানি এ বলেন, “টুসু গান শোনার আমার খুব আগ্রহ ছিল। আজ শুনে ভীষণ খুশি হলাম। আমাদের ঝাড়গ্রাম মূলবাসী, আদিবাসী, কুড়মিদের পৃথক সংস্কৃতি আছে, তা ধরে রাখতে হবে। আরও ভাল জায়গায় তা নিয়ে যেতে হবে। উন্নয়ন মানে রাস্তাঘাট, স্বাস্থ্যই নয়, সংস্কৃতির উন্নয়ন দরকার। কুড়মিদের সার্বিক উন্নয়নে এই বোর্ড ভাল কাজ করছে। এই বোর্ডের জেলাতে একটি শাখা অফিস হবে। তার কাজও শীঘ্রই শুরু হবে”।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.