আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, এ বার জয়েন্ট হবে বাংলাতেও

ওয়েবডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আন্দোলনের হুঁশিয়ারির পর নড়েচড়ে বসল কেন্দ্র। সর্বভারতীয় জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেইন) পরীক্ষার প্রশ্নপত্র এ বার বাংলাতেও হবে। জাতীয় পরীক্ষা সংস্থা তথা এনটিএ-কে এমনই নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক।

তবে, ২০২০ নয়, ২০২১-এর পরীক্ষা থেকে এই নিয়ম চালু হচ্ছে। বাংলার পাশাপাশি আরও দশটি আঞ্চলিক ভাষায় জয়েন্টের প্রশ্নপত্র হবে।

সর্বভারতীয় জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় ইংরাজি ও হিন্দি ভাষায় প্রশ্নপত্র তৈরি হত। পরীক্ষার্থীরাও এই দু’টি ভাষাতেই উত্তর দিতে পারেন। তবে আঞ্চলিক ভাষায় পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে দেয় ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি বা এনটিএ। কিন্তু আঞ্চলিক ভাষা হিসেবে সেখানে স্থান পায় গুজরাতি।

আঞ্চলিক ভাষাগুলির মধ্যে শুধু গুজরাতিকে কেন প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে তৃণমূল। এ ছাড়া বাম, কংগ্রেস-সহ অন্য বিরোধীরাও কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গর্জে ওঠে। টুইটে বিরোধিতার সুর চড়িয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন শনিবার মধ্যরাত থেকে আট ঘণ্টার ট্রাফিক ব্লক হাওড়ায়, একাধিক ট্রেনের সময়সূচী পরিবর্তন

যুব তৃণমূলের তরফে পথে নেমে আন্দোলনও করা হয়। সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হলে আরও ব্যাপক আন্দোলন হবে বলেও জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। 

হাজারও সমালোচনার মাঝে নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রক। বাংলা-সহ ১১টি আঞ্চলিক ভাষায় এই প্রশ্নপত্র তৈরিতে শিলমোহর দেওয়া হয়।

ফলে এক কথায় বলাই যেতে পারে, যে উপনির্বাচনের মতোই জয়েন্টের ব্যাপারেও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বাজিমাত্র করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.