গা গুলোয়! তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাবুল সুপ্রিয়কে লাগাতার কটাক্ষ কবীর সুমনের

0
কবীর সুমন, বাবুল সুপ্রিয়। সংগৃহীত প্রতীকী ছবি

কলকাতা: শনিবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন আসানসোলের দু’বারের বিজেপি সাংসদ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তার পর থেকেই ধারাবাহিক ভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় বাবুলকে তোপ দেগে চলেছেন কবীর সুমন।

বাবুল তখন বিজেপিতে। সেই সময়কার একাধিক ঘটনাকে তুলে ধরে বাবুলের সঙ্গে সংঘাতের উদাহরণ উঠে এসেছে সুমনের একের পর এক ফেসবুক পোস্টে।

শনিবার একটি পোস্টে সুমন লেখেন, “বিজেপি সাংসদ ও মন্ত্রী শ্রীযুক্ত বাবুল সুপ্রিয় কিছুকাল আগে আমায় নিয়ে ফেসবুকে ঠাট্টা করেছিলেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে স্থুল ইঙ্গিতপূর্ণ কথা লিখে। লিখেছিলেন ‘আপনার মমতাময়ী’। আমি তাঁকে কোনো কটুক্তি করিনি।

আজ তিনি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন সশব্দে। তৃণমূলের বড়ো বড়ো নেতা তাঁকে বরণ করে নিয়েছেন। আমি তৃণমূলের সমর্থক। সদস্য নই। তৃণমূল দল কাকে টেনে নেবেন সেটা একান্তই তাঁদের ব্যাপার।

শুধু, ‘আপনার মমতাময়ী’ বলে গায়ে পড়ে বিদ্রুপ করা এই মুসলিমবিদ্বেষী, এনআরসি-পন্থী, বাংলা ও বাঙালি বিদ্বেষী বাবুল সুপ্রিয় মহোদয় এখন ‘তাঁর মমতাময়ী’ সম্পর্কে কী ভাবছেন তৃণমূলে তাঁর কাছের মানুষরা হয়তো জানতে চাইছেন”।

রবিবার প্রথমে একটি ফেসবুক পোস্টে ফের সরব হন সুমন। লেখেন, “আমি রাজনীতির লোক নই। রাজনীতিতে থেকে দেখেছি ওটা আমার জায়গা নয়। তবু, আজ জীবনে প্রথম মনে হচ্ছে একটা দল খুলি। যার ভিত্তি হবে অহিংসা, ধর্মনিরপেক্ষতা, বাংলাবাদ আর সমাজতন্ত্র।

আমি ক্রুদ্ধ হইনি। তেমন অবাকও হইনি। শুধু বুঝতে পারছি আমার মতো লোকদের আসলে কোনো জায়গা নেই। কিন্তু আদ্যন্ত শ্রীরামকৃষ্ণবাদী এই আমি মনে করি ছোবল মারব না কিন্তু ফোঁস করব বৈকি।

চেষ্টা করতে হচ্ছে না, এমনিই মনে হচ্ছে আসানসোলের ইমাম রশিদির কিশোর ছেলের কথা যাঁকে মুসলিমবিদ্বেষী হিন্দুত্ববাদী ফ্যাসিস্টরা খুন করেছিল। বিজেপি সাংসদ শ্রীযুক্ত বাবুল সুপ্রিয় তখন কী করছিলেন।

কিছু না বলে কয়ে ছেড়ে দিতে পারছি না কিছুতেই।আমি রাজনীতির লোক নই। তাও।

আমার সহনাগরিকরা, দোহাই আপনাদের – ভুলে যাবেন না। ভুলে গেলে অত্যাচারিতরা আবার অত্যাচারিত হবেন”।

বাবুল তৃণমূলে যোগ দিতেই তাঁকে স্বাগত জানান দলের সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তাঁর এক টুইটের স্ক্রিনশট পোস্ট করে সুমন এ দিন ফেসবুকে ফের লেখেন, “একে বলে রাজনীতি। এই না হলে রাজনীতি। নতুন দল খুললেও এদের পরিবেশেই থাকতে হবে। গা গুলোয়-“।

শুধু বাবুল সুপ্রিয় নন, আর এক সঙ্গীতশিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তী এবং কবি শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায়কেও নিশানা করে আগের দিনের পোস্টে সুমন লেখেন, “আমাকে যাঁরা স্রেফ গায়ে পড়ে অপমান করে গেছেন, যেমন শ্রী নচিকেতা চক্রবর্তী এবং শ্রী শ্রীজাত বন্দ্যোপাধ্যায় – তাঁদের সঙ্গে আর-একটি নাম যুক্ত হল। এই তিনজনের একজনকেও আমি অপমান বা আক্রমণ করিনি। তিনজনেই গায়ে পড়ে আমায় অপমান করেছেন। ২০০৫/৬ সাল থেকে দীর্ঘকাল সিপিআইএম বিরোধী গণ আন্দোলনে সামিল ছিলাম। এঁরা?

যা বুঝলাম যে যখন চাইবে আমায় অপমান করবে এই রাজ্যে। কিন্তু ইংরিজিতে একটা কথা আছে : ‘Every dog has his day.’ আমার দিনও আসবে। কোনো দল বা নেতারা যেন না ভাবেন আমি দুর্বল এবং একা। আমি দুর্বলও নই একাও নই।

আত্মমর্যাদার ওপরে কিছুই নয়, কেউ নয়।

ফেরত দিয়ে তবে মরব।

আমার বয়স হয়ে গেছে, কিন্তু এখনও দুর্বল নই। এবং আমি একা নই”।

যা পেয়েছি তা ফেরত দিয়ে তবে মরব”।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

আইকোর মামলায় মানস ভুঁইয়াকে তলব করল সিবিআই

ভবানীপুরের ভোটের দিনই রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডেকে পাঠাল দিল্লির আদালত

বিটকয়েন মাইনিং পরিবেশের জন্য বড়োসড়ো বিপদের কারণ, বলছে গবেষণা

পশ্চিমবঙ্গের ছয় জেলায় সক্রিয় কোভিডরোগীর সংখ্যা একশোর কম, একটি জেলায় কুড়িরও কম

বিদায়যাত্রা শুরু হওয়ার নামগন্ধ নেই, প্রলম্বিত বর্ষার জন্য তৈরি হচ্ছে ভারত

আগের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলল পশ্চিমবঙ্গ, তবে বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলিতে শনিবার ব্যাপক ভাবে কমল টিকাকরণ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন