খবরঅনলাইন ডেস্ক: মাত্র কয়েক বছর আগেও তাঁর ডাকে পাহাড়ে বাঘে গোরুতে এক ঘাটে জল খেত। সেই বিমল গুরুংই দেখলেন কী ভাবে পাহাড়ে তাঁর রাজনৈতিক জমিটা নড়বড়ে হয়ে গেল। পাহাড়ের তিন বিধানসভা আসনেই মুখ থুবড়ে পড়ল গুরুং সমর্থনকারী প্রার্থীরা। মূল লড়াইটা হল বিজেপি এবং বিনয় তামাং গোষ্ঠীর মধ্যে।

পাহাড়ের তিনটে বিধানসভা কেন্দ্র- দার্জিলিং, কালিম্পং এবং কার্শিয়াং। এই তিন আসনেই রমরমা ছিল আঞ্চলিক দলগুলির, কখনও জিএনএলএফ বা কখনও গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। কিন্তু এ বার দু’টো আসনেই ফুটল পদ্ম। অর্থাৎ খাতা খুলল কোনো জাতীয় দল।

২০১৯-এর বিধানসভা উপনির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রে জয়ী হয়েছিলেন বিজেপির নিরজ জিম্বা। এ বার তিনি তাঁর আসন ধরে রেখেছেন। কিন্তু বিনয় তামাং গোষ্ঠী যথেষ্ট লড়াই করেছে। বিনয় সমর্থিত প্রার্থী কেশব রাজ শর্মাকে ২১ হাজার ২৭৪ ভোটে হারিয়ে দার্জিলিং থেকে জিতেছেন নিরজ।

অন্য দিকে, কার্শিয়াংও পদ্ম ফুটেছে। সেখানে বিনয় গোষ্ঠীর প্রার্থীকে ১৫ হাজার ৫১৫ ভোটে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন বিজেপির বিষ্ণু প্রসাদ শর্মা। তবে কালিম্পং বিনয় গোষ্ঠীর মুখে হাসি ফুটিয়েছে। এই কেন্দ্রে জিতেছেন রুডেন সাডা লেপচা। দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি।

তিনটে আসনেই তৃতীয় স্থানে নেমে গিয়েছেন গুরুং সমর্থিত প্রার্থীরা। রাজনৈতিক কারবারিদের অনেকেরই ধারণা সুভাষ ঘিসিং যে ভাবে অপ্রাসঙ্গিক হয়ে গিয়েছিলেন পাহাড়ে, ঠিক সে ভাবেই গুরুংও অপ্রাসঙ্গিক হয়ে যাওয়ার পথে।

রাজ্য সরকার গঠিত তামাং, লেপচা, ভুটিয়া, লিম্বু, মুঙ্গের, খাম্বুরাই, ভুজেল, কামি, দামাই, নেওয়ার, থামি, খাস এবং গুরুং গোষ্ঠীর উন্নয়ন বোর্ডগুলির সমর্থনের জোরেই বিনয়-অনিকরা তাঁদের প্রাক্তন নেতা বিমলকে পিছনে ফেললেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ।

আরও পড়তে পারেন Bengal Polls 2021: জঙ্গলমহলে ফিকে হল গেরুয়া, জুটল মাত্র দুটি আসন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন