কী ভাবছেন, কারা সেই মশা, যারা শিক্ষা দফতরের অধীন ? নইলে ডেঙ্গির মশা মারতে শিক্ষা দফতরের প্রয়োজন হচ্ছে কেন! না, তেমন কিছুই নয়। কলকাতা পুর নিগমের স্বাস্থ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ জানিয়েছেন লেডি ব্রেবোর্ন কলেজের তহবিল প্রায় শূন্যে পরিণত হয়েছে। তাই কলেজ কর্তৃপক্ষ ঠিকমতো ডেঙ্গি মোকাবিলা করতে পারছে না।
ডেঙ্গি মোকাবিলায় সোমবার লেডি ব্রেবোর্ন কলেজ ও লরেটো স্কুল এবং কলেজ পরিদর্শনে গিয়েছিলেন কলকাতা অতীনবাবু। লরেটোর প্লে গ্রাউন্ডে একটি বাঁশের কাঠামো রয়েছে। সেখানে বাঁশের মাথায় গর্তে পাওয়া গিয়েছে এডিশ মশার লার্ভা। 

dengue_lady-brabourne
অন্যদিকে লেড্রি ব্রেবোর্ন কলেজের অবস্থা খুবই বিপজ্জনক বলে জানান অতীনবাবু। লেডি ব্রেবোর্নের একাধিক জায়গা থেকে যেমন এডিশ মশার লার্ভা পাওয়া গিয়েছে তেমনই মিলেছে অ্যানোফিলিস অর্থাৎ ম্যালেরিয়া মশার লার্ভা। এর ফলে ডেঙ্গি ও ম্যালেরিয়া উভয় রোগ ছড়ানোর আশঙ্কা রয়েছে লেডিব্রেবোর্ন কলেজ ক্যাম্পাসে। অতীন বাবু জানান লেডিব্রেবোর্নের ফান্ড কার্যত শূন্যে পরিণত হয়েছে। তাই সাফাই করতে পারছেন না কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গিয়েছে। মেয়র পারিষদ স্বাস্থ্য জানান আগামী বৃহস্পতিবার কলকাতা পুর নিগমের স্বাস্থ্য, উদ্যান ও জঞ্জাল বিভাগ যৌথ অভিযান চালাবে লেডি ব্রেবোর্নে। 
একই সঙ্গে তিনি জানান কলকাতা পুর নিগমের তরফে বিষয়টি চিঠি দিয়ে জানানো হবে রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। কলেজ কর্তৃপক্ষকে পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here