প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: বনগাঁ পুরসভায় অনাস্থা নিয়ে বৃহস্পতিবার বিশেষ নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। তিন কাউন্সিলারকে অনাস্থার প্রস্তুতি নিতে বলে আদালত। এ দিন আদালত আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনাস্থা প্রস্তুতি শুরু করতে বলেছে।

সম্প্রতি ১২ জন কাউন্সিলার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনার কথা জানান। ওই ১২ জন কাউন্সিলার বিজেপি যোগদান করেন। অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে তাঁরা মহকুমা শাসকের কাছে যান, এমনকী পুরমন্ত্রীর সঙ্গেও তাঁরা কথা বলেন বলে জানা যায়। কিন্তু এ ব্যাপারে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণে প্রশাসন কোনো উদ্যোগ নেয়নি। যার জেরে আদালতের দ্বারস্থ হন কাউন্সিলাররা। বিজেপির অভিযোগ, পুরসভা ধরে রাখতে বনগাঁয় প্রশাসক বসানোর চেষ্টা করেছিল তৃণমূল সরকার। এর পরই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় সিপিএম ও বিজেপি। এ দিন প্রশাসক বসানোর চেষ্টার বিরুদ্ধে মামলার শুনানিতে অনাস্থাতেই সায় দিল হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, ২২ আসনের পুরসভা বনগাঁ। তার মধ্যে ২০টি আসন তৃণমূলের দখলে ছিল। একটি করে ওয়ার্ড রয়েছে সিপিআইএম ও নির্দলের দখলে। এর পর পুরপ্রধান শঙ্কর আঢ্যর প্রতি অনাস্থা জানিয়ে মহকুমাশাসকের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তৃণমূলেরই ১১ জন কাউন্সিলর। বিক্ষুব্ধদের দাবি, তাঁর দল ছেড়ে যাবেন না। কিন্তু পুরপ্রধানকে সরিয়ে দিতে হবে

এর পরে অবশ্য বিজেপির তরফে দাবি করা হয়, বনগাঁর ১২ জন কাউন্সিলার গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছেন।বনগাঁ উত্তরের বিধায়ক-সহ পুরসভার ১২ জন তৃণমূল কাউন্সিলর গত ১৮ জুন নয়াদিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে শিবির বদল করেন। ফলে ২২ কাউন্সিলরের ১২ জনই বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় তৃণমূলের হাতে থাকা বনগাঁ পুরসভাও ভাঙনের মুখে পড়ে।

এ দিন অনাস্থায় অংশ নেওয়া কাউন্সিলারদের পক্ষেই গেল হাইকোর্টের নির্দেশ। আদালত জানায়, আগামী সাত দিনের মধ্যে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here