“গণতন্ত্র ফুটপাথে পড়ে রয়েছে”, বনগাঁ মামলায় রাজ্য এবং পুলিশকে তোপ হাইকোর্টের বিচারপতির

0
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবডেস্ক: “ফুটপাথে পড়ে রয়েছে গণতন্ত্র। মামলা কি চলতেই থাকবে”? বনগাঁ পুরসভার অনাস্থা নিয়ে মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এমনই মন্তব্য করলেন হাইকোর্টের বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়।

এ দিন বিচারপতি স্পষ্টতই বলেন, “ভোটের (অনাস্থা) সম্মুখীন হয়ে তো দেখো। পুলিশের কাজ হচ্ছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা। পুলিশ যদি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়, তা হলে রাজ্যকে জবাবদিহি করতে হবে। পুলিশের কাজ কাউন্সিলাররা যাতে নির্বিঘ্নে বৈঠকে যোগ দিতে পারে, সে দিকে নজর রাখা। কাউন্সিলাররা এক বার বলছেন, পুলিশ তাঁদের আটকেছে, আবার বলছে শাসক দলের লোকজন তাঁদের আটকেছে, তা হলে এ ক্ষেত্রে চেয়ারম্যানের উচিত ছিল ৪টে পর্যন্ত ধৈর্য্য ধরা। যাঁরা অনাস্থা এনেছিলেন, বৈঠকে তাঁরাই যোগ দিতে পারলেন না। গণতন্ত্রের পক্ষে এর থেকে দুর্ভাগ্যজনক আর কী হতে পারে”।

শুনানির শুরু থেকেই রাজ্য সরকার এবং পুলিশের সমালোচনা এ ভাবেই করেন সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “এটা গণতন্ত্রের সঙ্গে প্রতারণা৷ গণতন্ত্র ফুটপাথে এসে দাঁড়িয়েছে। গায়ের জোরে নির্দেশ না মানার প্রবণতা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতেই হবে। এই মামলা ক্রমাগত চলতে পারে না”।

এ দিন বনগাঁ মামলায় হাইকোর্টে শুনানি শেষ হলেও আগামী পরশু দিন সকাল সাড়ে ১০টায় ফের শুনানি হবে বলে জানা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জুলাই আস্থাভোট ঘিরে রণক্ষেত্র হয়ে উঠেছিল বনগাঁ পুরসভা। সে দিন বেলা তিনটের সময় আস্থাভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই বিজেপি কাউন্সিলারদের আটকে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে।‌

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন