couurt

কলকাতা: টেট ২০১৪ নিয়ে আরও জটিলতা বাড়ল। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে এই মামলার শুনানিতে আদালতের নির্দেশে মামলাকারী পরীক্ষার্থীদের অভিযোগই প্রাথমিকভাবে মান্যতা আদায় করে নিল হাইকোর্ট।

এ দিন হাইকোর্ট বলে, যে ১১টি প্রশ্ন নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে, সেগুলির বিষয়ে যাচাই করে যথাযথ তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর ওই রিপোর্ট আদালতে জমা করবে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের গঠিত একটি কমিটি। এ দিন ওই কমিটি গঠনের নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি আদালত প্রাথমিক ভাবে মেনে নেয়, ২০১৪-এর টেটে পরীক্ষায় এমসিকিউ ধাঁচের ১১টি প্রশ্নের যে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া ছিল, তার প্রতিটিই ছিল ভুল। ফলে পরীক্ষার্থী সেই চারটি উত্তর থেকে সঠিক উত্তরটি বেছে নিতে গিয়ে ধন্ধে পড়েন।

ওই পরীক্ষায় বসা ১০০ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্ন-উত্তর পরিবেশনের দাবি তুলে আদালতে যান। তাঁরা প্রত্যেকেই সে বার পরীক্ষা দিয়ে সফল হতে পারেননি। আদালতে সেই মামলার দীর্ঘ দিনের শুনানির পর শুক্রবার আবেদনকারীদের দাবিকেই প্রাথমিক ভাবে মান্যতা দিল হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন: প্রতি এক সপ্তাহে খুন হচ্ছেন চার জন পরিবেশকর্মী!

তবে উপাচার্য সবুজকলি সেনকে নতুন কমিটি গঠন করে তদন্ত রিপোর্ট জমা করার নির্দেশ দিলেও আবেদনকারীদের দ্বিধা কাটেনি। কারণ এর আগেও আদালত সবুজকলি সেনকে এ বিষয়ে রিপোর্ট জমা করার কথা বলেছিলেন। সেই রিপোর্ট এখনও অধরা। এ দিন রিপোর্ট হাতে না পেয়ে আদালত ক্ষুব্ধ হয়। এখন দেখার, আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর জমা করা রিপোর্টে কী থাকে, বা তা আদৌ জমা পড়ে কি না!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here