লোনের সেই নকল দলিল। ছবি: নিজস্ব চিত্র

কলকাতা: ঋণের নামে প্রতারণার চক্রের জাল ছিঁড়ল পুলিশ। এই চক্রে গ্রাহককে টোপ দেওয়ার জন্য কাজে লাগানো হত মহিলাদের। এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছে চক্রের দুই পাণ্ডা।

ঘটনার সুত্রপাত গত বৃহস্পতিবার। অচেনা নম্বর থেকে মোটা অঙ্কের ঋণের প্রলোভন দেখিয়ে একজনকে ফোন করে এক তরুণী। ঘটনার আকস্মিকতায় রীতিমতো বিস্মিত হয়ে যান মনোহরপুকুরের বাসিন্দা বছর তিরিশের মনোজিৎ দাস। চার লক্ষ টাকার সহজ ঋণ পেতে শর্ত একটাই, ঋণের অঙ্কের উপর দশ শতাংশ কাটমানি দিতে হবে। অর্থাৎ ৪০ হাজার টাকার ড্রাফট দিতে হবে। তবে তা ঋণপ্রদানকারী সংস্থার নামে নয়। এখানেই সন্দেহ হয় মনোজিতের।

আরও পড়ুন আলিপুরকে পেছনে ফেলে ফের শতরান হাঁকাল দমদম, বৃষ্টি গোটা রাজ্যেই

সন্দেহ পুরোপুরি দূর করতে লেক মার্কেটের কাজে সংস্থার অফিসে যোগাযোগ করেন মনোজিৎবাবু। জানতে পারেন প্রতারণা চক্রের খপ্পরে পড়েছেন তিনি। অভিযোগ পেয়েই তৎপর হন টালিগঞ্জ থানার আধিকারিকরা। ড্রাফট নিতে গিয়ে রবীন্দ্রসদন মেট্রো সংলগ্ন এলাকা থেকে হাতেনাতে ধরা পড়েন প্রতারণা চক্রের এক তরুণী। ধৃত বছর কুড়ির স্বাতী পাসোয়ানের সূত্র ধরে পুলিশ সন্ধান পায় চক্রের আরেক পাণ্ডা শঙ্কু টিকাদারের। এই দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংস্থার বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তদন্তে জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় আরও অনেকে প্রতারিত হয়েছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here